আগের অবস্থানে ফিরতে সবকিছুই করবেন আরাফাত সানি

আরাফাত সানি
Vinkmag ad

প্রায় সাড়ে তিন বছরের বেশি সময় পর জাতীয় দলে ডাক পেয়েছেন বাঁহাতি স্পিনার আরাফাত সানি। ভারতের বিপক্ষে আসন্ন টি-টোয়েন্টি সিরিজে ডাক পাওয়া সানি ভারত সফরের অনুশীলন ক্যাম্পের প্রথম দিন জানিয়েছেন, চ্যালেঞ্জ নিয়ে এগিয়ে যাওয়াই ক্রিকেটারের কাজ। নতুন করে পাওয়া সুযোগ কাজে লাগিয়ে জাতীয় দলে জায়গা পাকা করতে চান।

২০১৬ সালে ভারতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলেছেন সবশেষ ম্যাচ, মূলত বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ হওয়ার পর নিষিদ্ধ হন। যদিও এরপর পরীক্ষা দিয়ে বোলিং অ্যাকশন বৈধ প্রমাণ করে ফিরেছেন ২২ গজে। কিন্তু জাতীয় দলে মেলেনি আর জায়গা। ঘরোয়া লিগে পারফর্ম অবশ্য আবারও জায়গা দিতে বাধ্য করে আরাফাত সানিকে। মূলত নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেন বলেই বিবেচিত হয়েছেন মনে করেন সানি।

বোলিং অ্যাকশন বৈধ প্রমাণের পর আরাফাত সানি পরের বছর জড়ান নারী কেলেঙ্কারিতে, নারী নির্যাতন ও যৌতুক মামলায় ৫৩ দিন জেলও খাটেন আরাফাত সানি। ৩৩ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার সব বাঁধা বিপত্তি পাড়ি দিয়ে জীবন যাপনে বেশ পরিবর্তন এনেছেন। মাঠের ক্রিকেটেও পারফরম্যান্সের ছাপ রাখছেন, সবশেষ জাতীয় লিগেও ছিলেন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি। চলতি জাতীয় লিগের প্রথম রাউন্ডেই প্রথম ইনিংসে শিকার করেছেন ৬ উইকেট।

ভারতের মাটিতে সবশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ, তিন বছর পর আবার ভারতেই ভারতের বিপক্ষে জাতীয় দলে ডাক পেলেন। ভারতের মত শক্তিশালী দলের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে আবারও জাতীয় দলের জার্সির সুবাস পাওয়া সানি ব্যাপারটা দেখছেন কীভাবে?

‘তিন বছর আগে আমি ভারতে বোলিং অ্যাকশনের কারণে বাদ পড়েছিলাম, এবার সেখানে আবার সফর করছি। অবশ্যই নিজের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করবো, যেহেতু অনেক দিন পর আমি সুযোগ পেয়েছি।’

এত লম্বা বিরতির পর আবারও জাতীয় দলে ডাক পাওয়ার পেছনের কারণ জানানোর পাশাপাশি জায়গা পাকা করতে চান উল্লেখ করে সানি যোগ করেন, ‘গত তিন বছর কিন্তু ভালো ক্রিকেট খেলছিলাম। লক্ষ্য ছিল যে আমার সেরা পারফরম্যান্সটা করার, এর জন্য হয়তো আমাকে বিবেচনা করেছে। আমি আমার আগের জায়গাটা ধরে রাখার জন্য যা যা করার দরকার সেটাই করবো।’

জাতীয় দলের হয়ে ১৬ ওয়ানডে ও ১০ টি-টোয়েন্টি খেলা বাঁহাতি এই স্পিনার এবারের ভারত সফরে জায়গা পাওয়াটাকে চ্যালেঞ্জ হিসেবেই নিচ্ছেন, ‘খেলাটি সবসময় চ্যালেঞ্জিং ছিল। এখনো আছে, এটা চ্যালেঞ্জেরই একটি খেলা। খেলোয়াড় হিসেবে আমাদের কাজ হচ্ছে চ্যালেঞ্জ নিয়ে খেলাটি এগিয়ে নেয়া। যেহেতু আমি বাঁহাতি স্পিনার তাই কিভাবে রান চেক দিয়ে কিভাবে উইকেট টু উইকেট বোলিং করবো বা উইকেট বের করার জন্য অবশ্যই সেই পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছি।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

রইলো বাকী ৯৯, কতটুকু পাবেন বাংলাদেশের স্পিনাররা!

Read Next

স্মিথ-ওয়ার্নার দীর্ঘদিন পর টি-টোয়েন্টি দলে

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
2
Share