ক্রিকেটারদের ধর্মঘটকে ‘ষড়যন্ত্র’ বলছেন বিসিবি সভাপতি

নাজমুল হাসান পাপন
Vinkmag ad

ক্রিকেটারদের ১১ দফা দাবি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনের ২৪ ঘন্টা পর বোর্ড সভাপতি সংবাদ সম্মেলনে জানালেন ক্রিকেটারদের দাবি দাওয়ার বেশির ভাগই মেনে নেওয়ার মত। কিন্তু সরাসরি বোর্ডের কাছে দাবি দাওয়া তুলে না ধরে মিডিয়ার মাধ্যমে বলাতেই যত আপত্তি বিসিবি বসের। দাবি দাওয়া নিয়ে বোর্ডের সাথে ক্রিকেটারদের না বসার আগ পর্যন্ত কোন সিদ্ধান্ত দিতে নারাজ, ক্যাম্প শুরু হবে যথাসময়েই। অংশ না নেওয়া ক্রিকেটারদের ব্যাপারে নেওয়া হবে কঠোর পদক্ষেপ।

গতকাল (২১ অক্টোবর) ক্রিকেটারদের ধর্মঘট ঘোষণার পর রাতেই জানা গিয়েছে আজ (২২ অক্টোবর) বিসিবি বসতে যাচ্ছে জরুরী সভায়। সকাল থেকেই বিসিবিতে আসতে শুরু করে বোর্ড পরিচালকরা। দুপুরে সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের উপস্থিতিতে শুরু হয় নিজেরদের মধ্যে বৈঠক। বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে নিজেদের ভাবনা তুলে ধরতে গিয়ে বিসিবি সভাপতি জানান ক্রিকেটারদের এমন আন্দোলন দেশের ক্রিকেটকে পিছিয়ে দেওয়ার ষড়যন্ত্র।

মূলত ভারত সফর বাতিলের মাধ্যমে বিশ্বক্রিকেটে বোর্ডের ভাবমূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করছে একটি চক্র এমনটাই ধারনা পাপনের। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ভারতে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ খেলার জন্য কত অনুনয় বিনয় সবার। সেটা আয়োজন করলাম। ঠিক ওই সময়েই ধর্মঘট, ক্যাম্পে যাচ্ছেনা। এটা আমাদের বোঝার বাকি নাই, ওরা কিসের উন্নয়ন চায়। এসব দাবিতো মেনে নেওয়ার মতই। তো ধর্মঘট কেন?’

‘ওরা কিন্তু আলোচনা করতে এখনো আসেনি। আমরা ফোন দেই ফোন ধরেনা। এটা পরিষ্কার যে বিশেষ পরিকল্পনা করে এমনটা করা। মূলত আমাদের একজন ডিরেক্টর যেদিন গ্রেফতার হয়েছে সেদিন থেকেই আমার পেছনেও লেগেছে ওই চক্র। বাংলাদেশের ক্রিকেটকে অচল করার চক্রান্ত চলছে, এটা সবাই জানে। ওরা জানে আমাদের কাছে আসলে আমরা দাবি মেনে নিব। দাবি মানলেই ভারত সফরে যেতে হচ্ছে। তাই তারা আসছেনা, মূলত ভারত সফরকে বাতিলই তাদের উদ্দেশ্য।’

নাজমুল হাসান পাপন বলছেন এই চক্রের সাথে জড়িতদের সম্পর্কে জানেন তারা, এমনকি ক্রিকেটারদের মধ্যেও কেউ জড়িত আছে বলে মত তার, ‘কারা করছে আমরা জানি। ভারত সফরটা বাতিল করাতে পারলে আইসিসির কাছে আমাদের মানক্ষুণ্ণ করে বিসিবিকে পেছনে ফেলার ষড়যন্ত্র চলছে। আমার মনে হয় দুই একজন ক্রিকেটার এসব জেনেই আন্দোলনে নেমেছে। সবাই কিন্তু না, অনেকেই এসব না জেনে তাদের সাথে যোগ দিয়েছে।’

আগামী ২৫ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়ার কথা ভারত সফরের অনুশীলন। দিন দুয়েকের ব্যবধানে দু পক্ষের সমঝোতা হবে কিনা আর নাহলেও সেক্ষেত্রে বোর্ডের ভাবনা কি জানতে চাইলে পাপন যোগ করেন, ‘আমাদের ক্যাম্প শুরু হচ্ছে। ক্রিকেটাররা গেলে যাবে না গেলে নাই। ওদের আলোচনার সুযোগ রয়েছে আমাদের সাথে। সমস্যা নিয়ে যেকোন সময় বসতে পারে। আমরা দেখবো কারা কারা আসছে , কারা আসছেনা এরপরই আমরা সিদ্ধান্ত নিব’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

ক্রিকেটারদের উপর ক্ষোভ ঝাড়লেন ক্ষুদ্ধ বিসিবি প্রধান

Read Next

সাকিবদের দাবির পক্ষে ‘ফিকা’, কোয়াবের সদস্যপদ বাতিলের চিন্তা

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
8
Share