বোনাস পয়েন্টে এগিয়ে থেকে শীর্ষে খুলনা

ইমরুল কায়েস
Vinkmag ad

২১ তম ওয়ালটন জাতীয় লিগে প্রথম রাউন্ডের খেলা শেষ হয়েছে আজ (১৩ অক্টোবর)। টায়ার-১ এ থাকা চার দলই দুই ভিন্ন ভেন্যুতে ড্র করেছে। খুলনা-রংপুর ও ঢাকা-রাজশাহী- বৃষ্টি বিঘ্নিত দুই ম্যাচই শেষ হয়েছে অমীমাংসিত ভাবে।

তবে অন্য দলের চেয়ে বেশি বোনাস পয়েন্ট বাগিয়ে নিয়ে শীর্ষে আছে খুলনা বিভাগীয় দল। সবমিলিয়ে ৪.০১ পয়েন্ট খুলনার, সমান ৩.৫ করে ঢাকা ও রাজশাহীর। রংপুরের পয়েন্ট ২.৫।

এবারের জাতীয় লিগে পয়েন্ট সিস্টেম-

এবারের লিগে প্রতিটি জয়ের জন্য জয়ী দল পাবে ৮ পয়েন্ট। যদি টাই হয় ম্যাচ তাহলে টাই হওয়া ম্যাচে খেলা দুই দলই পাবে ৪ পয়েন্ট করে। ড্র হওয়া ম্যাচে দুই দলই পাবে ২ পয়েন্ট করে। যদি কোন ম্যাচ পরিত্যাক্ত হয় কোন বলই মাঠে না গড়িয়ে সেক্ষেত্রে দুই দলই ২ পয়েন্ট করে পাবে।

ব্যাটিংয়ে বোনাস পয়েন্ট:

প্রথম ১০০ ওভারে ২৫০ এর চেয়ে বেশি রান করলে, বেশি করা প্রতিটি রানের জন্য ০.০১ পয়েন্ট করে পাবে ব্যাটিং করা দল। এটা শুধুমাত্র ১ম ইনিংসের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। এবং ১ম ইনিংসে লিড নিলে কোন বোনাস পয়েন্ট নেই।

বোলিংয়ে বোনাস পয়েন্ট:

বোলিং এর ক্ষেত্রে প্রথম ১০০ ওভারে প্রতিপক্ষের ৫ম, ৭ম ও ৯ম উইকেট নিতে পারলে প্রত্যেক ক্ষেত্রে বোলিং করা দল পাবে ০.৫ পয়েন্ট করে। এটা শুধুমাত্র ১ম ইনিংসের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।

**প্রথম ১০০ ওভারের পর কোন দলের ক্ষেত্রেই আর নতুন করে বোনাস পয়েন্ট প্রযোজ্য নয়।

**এছাড়া টানা জয়ের ক্ষেত্রে আছে বোনাস পয়েন্ট। টানা ২ জয় পাওয়া দল পাবে ১ বোনাস পয়েন্ট। টানা ৩ জয়ে ২, টানা ৪ জয়ে ৩, টানা ৫ জয়ে ৪, টানা ৬ জয়ে ৫ বোনাস পয়েন্ট।

ড্র করাতে টায়ার-১ এর চার দলই প্রথম রাউন্ড থেকে পেয়েছে ২ পয়েন্ট করে। শীর্ষে থাকা খুলনা বোনাস পয়েন্ট হিসাবে বাড়তি ২.০১ পয়েন্ট পেয়েছে। আগে বল করা খুলনা প্রতিপক্ষ রংপুরের ৯ উইকেট তুলে নিয়েছিলো প্রথম ১০০ ওভারে। সেক্ষেত্রে তাঁরা বোনাস পয়েন্ট হিসাবে পেয়েছে (০.৫+০.৫+০.৫)= ১.৫। আর ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম ১০০ ওভারে ২৫০ থেকে ৫১ রান বেশি (৩০১) করেছিলো খুলনা। সেক্ষেত্রে বোনাস পয়েন্ট হিসাবে পেয়েছে (০.০১*৫১)= ০.৫১। সবমিলে খুলনার পয়েন্ট গিয়ে দাঁড়িয়েছে (২+১.৫+০.৫১)= ৪.০১।

প্রথম রাউন্ড শেষে টায়ার-১ এর পয়েন্ট তালিকাঃ

দল ম্যাচ জয় পরাজয় ড্র টাই পয়েন্ট
খুলনা ৪.০১
ঢাকা ৩.৫
রাজশাহী ৩.৫
রংপুর ২.৫

Shihab Ahsan Khan

Shihab Ahsan Khan, Editorial Writer- Cricket97

Read Previous

বোলিংটা সবসময়ই করতে চান মাহমুদউল্লাহ

Read Next

দুই ইনিংসেই আউট করা তামিমকে নিয়ে আশাবাদী মাহমুদউল্লাহ

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
8
Share