ছোট দলের বড় তারকা প্রমাণ দিলেন বিনয়ী মনোভাবের

rayan ten

ফুটবলে পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর উদাহরণ টেনে রায়ান টেন ডেসকাটকেও বলা হত ভুল জায়গায় জন্ম নেওয়া দুর্দান্ত এক প্রতিভা। বলার পেছনেও কারণ আছে যথেষ্ট, নেদারল্যান্ডসের মত দেশ থেকে উঠে এসে দাপিয়ে বেড়িয়েছেন বিশ্ব ক্রিকেটে। কমপক্ষে ১০০০ রান করা ক্রিকেটারদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি গড় ডেসকাটেরই। যেখানে তিনি পেছনে ফেলেছেন সময়ের সেরা ক্রিকেটার ভিরাট কোহলি ও বাবর আজমদের মত ব্যাটসম্যানদের। তবে নিজেকে তাদের কাতারে বসাতে রাজি নন এই ডাচ ক্রিকেটার।

ryan ten doeschate has seldom

জাতীয় দলে যতদিন খেলেছেন নিজের নামটি রেখেছেন সবার উপরেই। পরিসংখ্যান বলছে তিনি কোহলিদের চেয়ে এগিয়ে, ব্যাটিং স্টাইল আর রান করার প্রবল ইচ্ছে তাকে সেরাদের কাতারে রাখতে বাধ্যও করবে। অথচ শান্ত প্রকৃতির এই ডাচ ক্রিকেটার নিজেকে বিনয়ী প্রমাণ করে তাদের সাথে নিজের নাম জড়ানোয় চেয়েছেন ক্ষমা।

সম্প্রতি ক্রিকেটের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফো কমপক্ষে এক হাজার ওয়ানডে রান করাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি গড়ধারীদের নিয়ে একটি ছবি তৈরি করে। যেখানে ৬৭ গড় নিয়ে তালিকার প্রথমে আছেন ডেসকাট, ৬০.৩১ গড় নিয়ে এর পরের স্থানে আছেন সময়ের সেরা ব্যাটসম্যান ভিরাট কোহলি, ৫৪.৫৫ গড় নিয়ে যেখানে তিনে আছেন পাকিস্তানি ব্যাটসম্যান বাবর আজম। টুইটারে ক্রিকইনফোর ওই পোস্ট দেখে সেখানে বিশ্বের সেরা দুই ব্যাটসম্যানের কাতারে তাও প্রথমেই নিজের নাম দেখে ক্ষমা চেয়ে কমেন্ট করেন ডেসকাট। এই ক্ষমার চাওয়ার মাধ্যমে মূলত বিনয়ী মনোভাবের বহিঃপ্রকাশ ঘটিয়েছেন ডেসকাট।

945176b2 e64c 11e9 939f ba4a7f73df5c

দক্ষিণ আফ্রিকান বংশোদ্ভূত এই ডাচ ব্যাটসম্যান ৩৩ আন্তর্জাতিক ওয়ানডেতে রান করেছে ৬৭ গড়ে ৫ সেঞ্চুরিতে ১৫৪১ রান, যেখানে ১৩ টি-টোয়েন্টিতে রান করেছেন ৩০০। ক্রিকইনফোর ওই ছবিতে ক্ষমা চেয়ে করা কমেন্টে ডেসকাটের পক্ষেই গুনকীর্তন করেছেন লঙ্কান ক্রিকেটার দিলশান মুনাবীরা ও ইংলিশ ক্রিকেটার স্যাম বিলিংস। মুনাবীরা লিখেন সবসময়ের সেরা, অন্যদিকে বিলিংস লিখেন প্রকৃত নায়ক।

২০০৬ সালে ওয়ানডে অভিষের পর ২০১১ সালে যান অবসরে, তবে দেশের স্বার্থে ৬ বছর পর ফিরেন আরেকবার। ছিলেন ২০১৮ সালে নেদারল্যান্ডসের ২০১৯ বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দলেও। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের বাইরে খেলেছেন বিশ্বের প্রায় সব ফ্র‍্যাঞ্চাইজি লিগে। আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে পাঁচ মৌসুম খেলেছেন, যেখানে ২০১২ ও ২০১৪ সালে শিরোপা জয়ী দলের সদস্য ছিলেন। ইংলিশ কাউন্টিতে খেলেন এসেক্সের হয়ে, সবশেষ টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টেও দলটির শিরোপা জয়ী দলের সদস্য ৩৯ বছর বয়সী রায়ান টেন ডেসকাট।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

অবসরের সিদ্ধান্ত কি নিয়েই নিলেন হারভজন সিং?

Read Next

শেষ পর্যন্ত নাম সরিয়ে নিলেন হরভজন!

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Total
0
Share