বিপ টেস্ট নয়, ম্যাচ ফিটনেসেই নজর মোহাম্মদ শরীফের

মোহাম্মদ শরীফ

ক্রিকেট পাড়ায় আলোচনা কেবল বিপ টেস্ট নিয়েই। কদিন ধরে ঘরোয়া লিগের নিয়মিত মুখরা গণমাধ্যমে কথা বলছেন বিপ টেস্টে বোর্ডের বেধে দেওয়া মানদন্ড নিয়ে। জাতীয় লিগে খেলতে হলে বিপ টেস্টে অবশ্যই পেতে হবে ১১, আগেরবার যা ছিল ৯। ঘরোয়া লিগের নিয়মিত মুখ পেসার মোহাম্মদ শরীফ বলছেন বিপ টেস্টে বাড়তি নজর দেওয়ার পাশাপাশি বিবেচনায় রাখা উচিত পারফরম্যান্সকেও।

মোহাম্মদ শরীফ
ছবিঃ ক্রিকেট৯৭

মিরপুরে একাডেমি মাঠে অনুশীলন শেষে আজ (২৮ সেপ্টেম্বর) সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে মোহাম্মদ শরীফ বলেন, ‘হ্যা, যেকোন পরীক্ষা দেওয়ার আগেই সবার ভেতরেই একটা টেনশন কাজ করে স্বাভাবিক । গতবার ছিল মনে হয় ১১ কিংবা ১২ ছুঁতে পারলেই হবে (আসলে ৯)। এবার কিন্তু জোরালো ভাবেই বলা হচ্ছে ১১ দিতেই হবে। ১১ হয়তো দিতে পারবো কিংবা অনেকেই দিবে, কিন্তু দেখা গেল একজন ১৪ দিয়ে ফেললো অথচ সে ম্যাচে ফিট না। আবার কেউ ৮/৯ দিল কিন্তু ম্যাচে ডাবল হান্ড্রেড কিংবা দুই ইনিংসে ১০ উইকেট নিয়ে নিল। সেক্ষেত্রে আপনি পারফরম্যান্স বিবেচনা করাই কি উচিত নয়? অবশ্যই ম্যাচ ফিটনেসকেই গুরত্ব দেওয়া উচিত।’

ঘরোয়া ক্রিকেটের খেলোয়াড়েরা বিপ টেস্ট নিয়ে যতই দ্বিধা দ্বন্দ্বে থাকুক বিশ্বে অন্যান্য দেশে এই সংস্কৃতি বেশ পুরোনো। এমন প্রসঙ্গ উঠতেই ৩৩ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার তুলে ধরলেন বাস্তবতা, ‘বাইরের দেশের সাথে আমাদের মিলিয়ে লাভ নেই। আমরা যে কন্ডিশনে খেলি সেটা অন্যদের থেকে আলাদা। যারা ঘরোয়া লিগে নিয়মিত খেলে ও তরুণ যারা আছে তারা হয়তো ১১ দিতে পারবে। আমার টার্গেট ১১ হয়তো দিতে পারবো। কিন্তু যারা দিতে পারবেনা তাদের সুযোগ দিবেন না এটা হতে পারেনা। তাহলে তো দেখা যাবে অনেক ক্রিকেটারই খেলার সুযোগ পাবেনা।’

সাম্প্রতিক সময়ে ফিটনেস নিয়ে বোর্ডের যে তৎপরতা তাতে পারফর্মাররা কি আড়ালেই থেকে যাবে? ৩৯৩ প্রথম শ্রেণির উইকেটের মালিক শরীফ বলছেন ফিটনেসের সাথে অবশ্যই পারফরম্যান্স রাখতে হবে বিবেচনায়, ‘ফিটনেসই যদি দেখা হয় পারফরম্যান্স দেখবে কে? পারফরম্যান্স যারা করছে তাদের কাউন্ট করা উচিত। ফিটনেস আপনার লাগবেই, এছাড়াতো লংগার ভার্সন খেলা সম্ভব নয়। আমাদের বেশিরভাগ চারদিনের ম্যাচ, অনেক সময় ট্রাভেলসহ পাঁচদিন হয়ে যায়। কারণ আমরা বাইরের দেশের মত ফ্লাইটে যাইনা, বাসে কিংবা ট্রেনে যাই। আমার মনে হয় আমাদের বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই ফিট, আমরা যারা বাঙালি কিংবা এশিয়া মহাদেশের তারা কিন্তু খুব পরিশ্রমী। আমাদের কিন্তু সেভাবে ধরা হয়না।’

নাজমুল হাসান তারেক

Read Previous

বিপ টেস্ট নিয়ে সানির কণ্ঠে ভিন্ন সুর!

Read Next

এবার কাঠগড়ায় ঘরোয়া লিগের বলও!

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Total
0
Share