রনির শেষ ওভারের রোমাঞ্চে জিতলো বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল

আবু হায়দার রনি

ভারতীয় অনূর্ধ্ব-২৩ দলের বিপক্ষে ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে এখন ভারতে সাইফ হাসানের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল। প্রথম ম্যাচে পরাজয়ের পর আজ দ্বিতীয় ম্যাচে শেষ ওভারের রোমাঞ্চে জিতেছে সফরকারীরা।

৩৬ ওভারে ২১৮ রানের জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে ৭৭ রান তোলেন ইয়াশাভি ভূপেন্দ্র জাইসাওয়াল ও মাধব কৌশিক। ৪৫ বলে ৫ চারে ৩৪ রান করা ইয়াশাভি ভূপেন্দ্র জাইসাওয়ালকে এলবিডব্লিউ করে ফেরান তানভির ইসলাম। ১ ওভার বাদে ৫২ বলে ৩ চারে ৩৪ রান করা মাধব কৌশিক রান আউট হন।

তিনে নামা বি আর শরৎ ছিলেন আক্রমণাত্মক। ৩৪ বলে ৭ চারে ফিফটি পূর্ণ করেন তিনি। তবে এরপর অবশ্য আর টিকতে পারেননি বেশি। সুমন খানের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন ৫৫ রানের মাথায়। সফরকারীরা ম্যাচেও ফেরে তখন। পাঁচে নামা ঋত্বিক রয় চৌধুরী দ্রুত রান তোলার চাপ নিতে পারেননি। রান আউট হবার আগে ১৩ বল খেলে ঋত্বিক করতে পারেন কেবল ৫ রান।

চারে নামা ভারতীয় অধিনায়ক প্রিয়ম গার্গও ফিফটি করেন শরৎ এর পর। তবে ৫১ বলে ৩ চারে ৫৩ রান করা প্রিয়ম গার্গকে ৩৫ তম ওভারের ৫ম বলে ফেরান সুমন খান।

আবু হায়দার রনি
ফাইল ছবি

শেষ ওভারে স্বাগতিকদের দরকার ছিলো ৯ রান। শেষ ওভারে বল হাতে নেওয়া আবু হায়দার রনি দেন মাত্র ৩ রান, নেন দুই উইকেট। ৩৬ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২১২ রান করে থামে স্বাগতকরা। ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল ম্যাচটি জিতে নেয় ৫ রানের ব্যবধানে।

এর আগে লখনৌ এর ভারতরত্ন শ্রী অটল বিহারি বাজপায়ি একানা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দলের অধিনায়ক সাইফ হাসান।

আগের ম্যাচের সেরা একাদশের পরিবর্তনের সাথে পরিবর্তন আসে ব্যাটিং অর্ডারেও। সাইফ হাসানের সঙ্গে ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে নেমেছিলেন মেহেদী হাসান। ১৩ তম ওভারে যেয়ে ভাঙে সাইফ-মেহেদী উদ্বোধনী জুটি। ৩৬ বলে ৪ চার ও ১ ছয়ে ২৫ রান করে আউট হন মেহেদী।

আগের ম্যাচে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। তবে এই ম্যাচে ফিফটি তুলে নেন সাইফ হাসান। ৬৭ বলে ৩ চার ও ১ ছয়ে ফিফটি পূর্ণ করেন এই ডানহাতি ওপেনার। ঋত্বিক শকিনের বলে বোল্ড হবার আগে করেন ৬৪ রান।

৩৪.৩ ওভার খেলা হবার পর নামে বৃষ্টি। বৃষ্টিতে লম্বা সময় খেলা বন্ধ থাকার পর শুরু হলেও খেলার দৈর্ঘ্য কমিয়ে ৩৬ করা হয়। বাকি থাকা ৯ বলে ফারদিন হাসান অনি ও ইয়াসির আলী চৌধুরী রাব্বি মিলে করেন ৮ রান। ২ উইকেটে ১৪৯ রান নিয়ে থামেন তাঁরা।

৭২ বলে ১ টি করে চার ও ছয়ে ৪৭ রান করে অপরাজিত থাকেন ফারদিন, ১৬ বল খেলে রাব্বি অপরাজিত থাকেন ৭ রান করে।

ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ৩৬ ওভারে ভারতীয় অনূর্ধ্ব-২৩ দলের জয়ের লক্ষ্য ২১৮ রান।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল ১৪৯/২ (৩৬/৩৬), সাইফ ৬৪, মেহেদী ২৫, ফারদীন ৪৭, রাব্বি ৭; ঋত্বিক ৩৯/২।

ভারতীয় অনূর্ধ্ব-২৩ দল ২১২/৭ (৩৬)- লক্ষ্য ছিলো ৩৬ ওভারে ২১৮, জাইসাওয়াল ৩৪, মাধব ৩৪, শরৎ ৫৫, প্রিয়ম ৫৩, ঋত্বিক ৫, সম্রাট ১১, শেঠ ১, হারপ্রীত ২*, শুভাং ০*; রনি ৮-০-৪৫-২, সুমন ৭-০-৪৪-২, তানভির ৭-০-৪৯-১।

ফলাফলঃ বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২৩ দল ৫ রানে জয়ী (ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে)।

Shihab Ahsan Khan

Shihab Ahsan Khan, Editorial Writer of Cricket97 & en.Cricket97

Read Previous

একা হাতে বাংলাদেশকে জেতালেন সাকিব

Read Next

একদিনে সাকিবের দুই অর্জন

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
61
Share