দ্রাবিড় ইস্যুতে আইসিসি ও বিসিসিআইকে একহাত নিল ভারতীয় ভক্তরা!

রাহুল রাবিড় রবি শাস্ত্রী

১৬ বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন ভারতের হয়ে, রান করেছেন ২৪ হাজারের বেশি। মি. ডিপেন্ডেবল, দ্যা ওয়াল খ্যাত রাহুল দ্রাবিড় কোন হাতে ব্যাট করতেন এটা নিয়ে নতুন করে প্রশ্ন জাগার কোন সুযোগ নেই, অল্প স্বল্প ক্রিকেট জ্ঞান রাখা যেকেউই অকপটে বলবে অবশ্যই ডান হাতে ব্যাট করতেন! কিন্তু বিপত্তিটা তৈরি করেছেন স্বয়ং ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা আইসিসি।

রাহুল রাবিড় রবি শাস্ত্রী
ছবিঃ বিসিসিআই টুইটার

গতবছর পঞ্চম ভারতীয় ক্রিকেটার হিসেবে আইসিসির হল অফ ফেমে জায়গা করে নেন ৪৬ বছর বয়সী ভারতীয় সাবেক তারকা ক্রিকেটার রাহুল দ্রাবিড়। কিন্তু আইসিসির ওয়েবসাইটে হল অফ ফেম বিভাগে রাহুল দ্রাবিড়ের প্রোফাইলে লেখাঃ ব্যাটিং- বাঁমহাতি! আর এমন বড়সড় ভুল তাও আইসিসির মত সংস্থার কাছ থেকে আশা করেনা ক্রিকেট প্রেমীরা। ভারতীয়দের কথা তো আলাদা করে বলার কিছু নেই, নিজেদের ক্রিকেট ইতিহাসেরই অন্যতম একজন ব্যাটসম্যানকে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়েছে ভুলভাবে। নিজেদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ করেছেন টুইটারে।

টুইটারে সমালোচনার ঝড় উঠতেই অবশ্য আইসিসি ভুলটি শুধরে নেয়। তবে আর আগে তাদের শুনতে হয়েছে বেশ কড়া কথা বার্তাই। মাহেশ নামে একজন লিখেন, ‘আইসিসি, রাহুল দ্রাবিড় বাঁহাতি ব্যাটসম্যান? এতবড় একটা ভুল আপনাদের ওয়েবসাইট কীভাবে করে? ভুল ব্যাটিং স্টাইল উল্লেখ করা হয়েছে হল অফ ফেম তালিকায় দ্রাবিড়ের নামের পাশে। ‘ রমেশ বাবু নামে একজন আরও বেশি উগ্রভাবে লিখেন,’ আইসিসি আপনাদের চোখ আছে নাকি নাই? আপনারা দেখেননি দ্রাবিড় কীভাবে ব্যাট করতো? দ্রাবিড় বাঁহাতি ব্যাটসম্যান নয় সে একজন ডানহাতি ব্যাটসম্যান এবং সে ভারত ক্রিকেটের দ্যা ওয়ালখ্যাত একজন।’ অন্য একজন লিখেন,’ আইসিসি আপনারা কি মদ্যপ? রাহুল কবে বাঁহাতে ব্যাট করেছে? ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা হয়েও কিংবদন্তি নিয়ে এমন ভুল তথ্য!’

রাহুল রাবিড়

 

দ্রাবিড় ইস্যুতে আইসিসির পাশাপাশি ভারতীয় বোর্ডের উপরও বেশ ক্ষোভ ঝেড়েছে ভক্ত-সমর্থকরা। তবে এক্ষেত্রে ইস্যু ভিন্ন, চলমান দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ নিয়ে অনুশীলনে ব্যস্ত সময় পার করছে ভারতীয় দল। কোহলিদের অনুশীলন দেখতে যান দ্রাবিড়,সেখানে ক্যামেরা বন্দী হন প্রধান কোচ রবি শাস্ত্রীর সাথে। আর এমন ছবি নিজেদের ভেরিফাইড টুইটারে পোস্ট করেই তোপের মুখে পড়ে ভারতীয় বোর্ড।

মূলত ছবি নয়, ছবির ক্যাপশনেই ক্ষেপেছে ভক্তরা যেখানে লেখা হয়েছে, “যখন দুই কিংবদন্তি একসাথে”। আর এটাই মেনে নিতে পারেনি ভারতীয় ক্রিকেট প্রেমিরা,কারণ পরিসংখ্যানও বলছে শাস্ত্রী কখনোই দ্রাবিড়ের কাতারের কেউ ছিলনা। ২৩০ টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে রান করেছেন সর্বসাকুল্যে ৭ হাজারের কম তার বিপরীতে ১৬ বছর দলকে সেবা দেওয়া, ভারতের ব্যাটিং স্তম্ভের একজন রাহুল দ্রাবিড়ের রান ২৪ হাজারের বেশি। এছাড়া রাহুল যখন বয়সভিত্তিকে কোচিং করিয়ে পাইপলাইন তৈরিতে করছেন তখন শাস্ত্রী মোটা অঙ্কের অর্থের বিনিময়ে জাতীয় দলের দেখভাল করছেন।

বিসিসিআইয়ের ওই পোস্টে বেশ কটু কথা শুনতে হয়েছে ভারতীয় সমর্থকদের কাছ থেকে। সত্যম সিং লিখেন,’ রাহুল দ্রাবিড় পরিচর্যা ও তত্বাবধান করে ক্রিকেটার তৈরি করছেন আর শাস্ত্রী নিজের পকেট ভারি করছেন।’ আদিত্য সাহা লিখেন,’ ১০ কোটি রুপি শাস্ত্রীকে দেওয়া হয়, যা দ্রাবিড়ের প্রাপ্য। জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে খেলোয়াড় তৈরির কাজ করেন বলে। যা শাস্ত্রীর কাজের চাইতেও বড় কিছু।’ র‍্যাডিকাল ইয়ুথ লিখে, ‘ একজন বড় মাপের খেলোয়াড় ও অধিনায়ক আরেকজন মদ্যপের সাথে।’ গুপ্ত লিখে, ‘দুইজন! কই আমিতো একজনকে দেখি।’ আরেকজন লিখেন, ‘ আমি কেবল দ্রাবিড়কে দেখি, আরেকজন গ্রেট কে?’ ডুরাইরাজ লিখেন,’ যে কোচ ভারত চায় এবং বাস্তবে যাকে নেয়।’ অনুপম নামে একজন আরেকটু খোঁচা দিয়ে লিখেন,’ আমার মনে হয় রাহুল ও দ্রাবিড় নাম দুটোকে আলাদা করে দেখা হয়েছে।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

চুক্তি থেকে বাদ পড়ার পর বিশ্রামের ঘোষণা মইন আলির

Read Next

কোচ মিসবাহর পাকিস্তান ওয়ানডে দলে ইফতিখার চমক

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
4
Share