মাসাকাদজার বিদায়টা জয়ে রাঙালো জিম্বাবুয়ে

হ্যামিল্টন মাসাকাদজা

মঞ্চটা আগেই প্রস্তুত ছিল, উপলক্ষ্যটা সৃষ্টি করেছেন নিজে। ত্রিদেশীয় সিরিজ শুরুর বেশ আগেই জানিয়েছেন বাংলাদেশে চলমান ত্রিদেশীয় সিরিজই হবে তার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে শেষ সিরিজ। টুর্নামেন্টের প্রথম তিন ম্যাচ হেরে বিদায় নিশ্চিত হওয়ায় আজ (২০ সেপ্টেম্বর) আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটি ছিল জিম্বাবুয়ের জন্য নিয়মরক্ষার। তবে দলপতি মাসাকাদজার বিদায়ী ম্যাচ বলে নিয়মরক্ষার ম্যাচটিই বিশেষ গুরুত্ব পায় জিম্বাবুয়ানদের কাছে। স্বান্তনার জয়ে শেষটা রঙিনই হল হ্যামিল্টন মাসাকাদজার, আর দলের সহজ জয়ে ব্যাট হাতে নেতৃত্ব দিয়েছেন নিজেই।

হ্যামিল্টন মাসাকাদজা

১৫৬ রানের লক্ষ্য তাড়ায় পুরো সিরিজে ব্যর্থ জিম্বাবুয়েকে পেতে হয়নি বেগ। দুই ওপেনার ব্রেন্ডন টেইলর ও হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ৪০ রানের জুটিতে ইঙ্গিত দেন ভালো কিছুর। ৫ম ওভারের শেষ বলে মুজিবউর রহমানের শিকার হয়ে ফেরার আগে ১৭ বলে ১৯ রান করেন টেইলর। এরপর মাসাকাদজার ব্যাটে নির্বিঘ্নেই জয়ের দিকে হাঁটতে থাকে জিম্বাবুয়ে। তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন ব্যাটিং অর্ডারে তিন নম্বরে নামা চাকাবভা।

দুজনে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে যোগ করেন ৭০ রান। নিশ্চিত করেন দলের সহজ জয়। ৪৭ বলে ৭০ রানের জুটি গড়ার পথে ঝড়ো ইনিংস খেলেন মাসাকাদজা। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের শেষ ইনিংসে ৪২ বলে খেলেন ৭১ রানের ইনিংস। ইনিংসটি মাসাকাদজা সাজান ৪ চার ও ৫ ছক্কায়।

মাসাকাদজার দ্রুত রান তোলার বিপরীতে সঙ্গ দেওয়া চাকাবভা ও শন উইলিয়ামস বাকী পথ পাড়ি দিতে পারতেন অনায়াসেই। মাসাকাদজার সাথে জুটিতে খোলসবন্দী থাকা চাকাবভা পরে খেলেন হাত খুলে, ১৮ তম ওভারে প্রথম বলেই দলীয় ১৩৯ রানে মুজিবউর রহমানকে উড়িয়ে মারতে গিয়ে ডিপ মিড উইকেটে তালুবন্দী হন রাশিদ খানের হাতে। আউট হওয়ার আগে করেন ৩২ বলে ৩৯ রান। শেষ দিকে আর কোন বিপদ ঘটতে না দিয়ে ৭ উইকেট ও ৩ বল হাতে রেখে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়েন শন উইলিয়ামস (২০) ও মুতুম্বোজি(২)।

এর আগে আফগানিস্তানের শুরুটাও হয়েছে জিম্বাবুয়ের মত বরং ওপেনার রহমান উল্লাহ গুরবাজের ব্যাটে জিম্বাবুয়ের চাইতে খানিকটা এগিয়েও ছিল। ব্যাট কর‍তে নেমে শুরু থেকে তেড়েফুঁড়ে ব্যাট চালায় আফগান দুই ওপেনার গুরবাজ ও জাজাই। পাওয়ার প্লের ৬ ওভারেই বোর্ডে যোগ করে ৫৫ রান। ৯.৩ ওভারের জুটিতে তোলেন ৮৩ রান, ২৪ বলে ৩ চার ২ ছক্কায় ৩১ রান করে হযরত উল্লাহ জাজাই মুতুম্বোজির বলে ফিরলে ভাঙ্গে জুটি।

জাজাই ফিরলেও গুরবাজের ব্যাটে চার ছক্কার ফুলঝুরি ছুটতেই থাকে। ক্যারিয়ারের তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচেই পেয়ে যান ফিফটির দেখা। ১৪ তম ওভারের শেষ বলে উইলিয়ামসের শিকার হয়ে ফেরার আগে করেন ৬১ রান। ৪৭ বলে সমান ৪ টি করে চার, ছক্কায় খেলেন ইনিংসটি। কিন্তু ৪৮ বলের ব্যবধানে ৭ উইকেট হারানো আফগানরা শুরুর রেশ ধরে রাখতে পারেনি শেষে। তাসের ঘরের মত ভেঙ্গে পড়া আফগান ব্যাটিং লাইন আপ শেষ পর্যন্ত সংগ্রহ করে ৮ উইকেটে ১৫৫ রান।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বড় সংগ্রহের ইঙ্গিত দিয়েও পারলোনা আফগানিস্তান

Read Next

বিসিবি জিম্বাবুয়ে দলের আর্থিক সমস্যার সমাধান করলো

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
7
Share