নিজের পুরষ্কার নবি’কে দিয়ে দিলেন রাশিদ খান

রাশিদ খান মোহাম্মদ নবি

আফগানিস্তান খেলেছে এ নিয়ে ৩ টেস্ট। আফগানিস্তানের হয়ে তিনটি টেস্টেই অংশ নিয়েছেন অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবি। বাংলাদেশের বিপক্ষে জয় দিয়ে শেষ করা এই টেস্ট ম্যাচই নবির খেলা শেষ টেস্ট; কারণ এরইমধ্যে তিনি ঘোষণা করেছেন অবসরের। বাংলাদেশের বিপক্ষে চট্টগ্রামে একমাত্র টেস্টের দুই ইনিংস মিলিয়ে ১১ উইকেট ও ব্যাটিংয়ে ৭৫ রান নিয়ে আফগান অধিনায়ক রাশিদ খান হয়েছেন ম্যাচ সেরা।

রাশিদ খান ম্যাচ সেরার পুরষ্কার নেওয়ার সময় তার ম্যাচ সেরার পুরষ্কার নবিকে উৎসর্গ করলেন,

‘শেষ টেস্ট খেলেছেন কিংবদন্তি নবী; আমাকে এবং অন্যান্য তরুণ স্পিনারদের অনেক সাহায্য করেছেন। আমি তাকে শুভকামনা জানাই এবং আমি আমার ম্যান অফ দ্য ম্যাচের পুরষ্কার নবিকে উৎসর্গ করলাম।’

নবি তার শেষ টেস্টে ব্যাটে দুই ইনিংসে করলেন (০, ৮), বল হাতে দুই ইনিংস মিলিয়ে শিকার করেছেন ৪ উইকেট। টেস্ট ছাড়া বাকি দুই ফরম্যাটে অবশ্য খেলা চালিয়ে যাবেন মোহাম্মদ নবি।

রাশিদ খান মোহাম্মদ নবি
ছবিঃ বিসিবি

হেরেই বসলো বাংলাদেশঃ

আগের ওভারেই অল্পের জন্য বেঁচে গিয়েছিলেন। তবে পরের ওভারে আর পার পাননি। রাশিদের বলে শর্ট লেগে থাকা ইব্রাহিম জাদরানকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন সৌম্য সরকার। ৫৯ বল উইকেটে থেকে ১৫ রান করেন সৌম্য। দিনের খেলা আর বাকি ছিলো ৩.২ ওভার। ম্যাচে ১১ উইকেট নিশ্চিত করেন আফগান অধিনায়ক রাশিদ খান। আফগানিস্তান ম্যাচটি জেতে ২২৪ রানে।

ইমরান খান (১৯৮৩), অ্যালান বোর্ডার (১৯৮৯) এর পর তৃতীয় অধিনায়ক হিসাবে এক ম্যাচে ফিফটি ও ১০ বা এর বেশি উইকেট নিলেন রাশিদ খান। আর টেস্ট অধিনায়কত্বের অভিষেক হিসাব করলে রাশিদ খানই প্রথম।

অল্পের জন্য বাঁচলেন সৌম্যঃ

সৌম্য সরকারকে ছাতার মতো ঘিরে রেখেছিলেন ফিল্ডাররা। তবে রাশিদ খানের ওভারের ৫ বল পার হবার ফিল্ডারদের একটু সরিয়ে দেন রাশিদ। হঠাত লাফিয়ে ওঠা বল সৌম্যর ব্যাটে লেগে উঠে যায়। মিড অফে থাকা ফিল্ডার চেষ্টা করেও একটুর জন্য নাগাল পাননি।

রাশিদের ম্যাচে ‘১০’:

প্রথম ইনিংসে পেয়েছিলেন ৫ উইকেট, দ্বিতীয় ইনিংসে তাইজুল ইসলামকে ফিরিয়ে পূর্ণ করলেন ম্যাচে ১০ উইকেট। যদিও টিভি রিপ্লেতে দেখা গেছে বল লেগেছে ব্যাটে। রিভিউ না থাকায় সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারেননি তাইজুল।

রিভিউ নষ্ট করলেন মিরাজঃ

রাশিদ খানের চতুর্থ শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ২৮ বল খেলে ১ চারে ১২ রান করা মেহেদী হাসান মিরাজকে এলবিডব্লিউ করে ফেরান রাশিদ। শুধু আউটই হননি মিরাজ, সাথে নষ্ট করেছেন রিভিউও।

জীবন পেলেন মিরাজঃ

জহির খান আরো এক সুযোগ সৃষ্টি করেছিলেন। দ্বিতীয় ইনিংসে ইতোমধ্যে ৩ উইকেট নিয়ে ফেলা জহির খানের বলে শর্ট লেগে ক্যাচ তুলে দিয়েছিলেন মেহেদী হাসান মিরাজ। তবে তা তালুবন্দি করতে ব্যর্থ হন ফিল্ডার।

প্রথম বলেই ফিরলেন সাকিবঃ

বৃষ্টি শেষে মাঠে নামার পর প্রথম বলেই আউট হলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। ৫৪ বলে ৪৪ রান করে জহির খানের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন সাকিব।

খেলা শুরু ৪টা ২০ এঃ

পুনরায় খেলা শুরু হবে ৪ টা ২০ মিনিটে। খেলা মাঠে গড়াবে অন্তত ১৮.৩ ওভার। দিনের শুরুতে সাকিব-সৌম্যদের চ্যালেঞ্জ ছিলো ৯০ ওভারের বেশি টিকে থাকা। বৃষ্টির কল্যাণে যা কমে এসেছে অনেক কমে। আবার নতুন করে বৃষ্টি না এলে আর আলো খেলার উপযোগী থাকলে রাশিদরা বাকি ৪ উইকেট নিতে সময় পাচ্ছেন ১ ঘন্টার মতো।

মাঠ পরিদর্শনে দুই আম্পায়ারঃ

মাঠকর্মীরা ব্যস্ত মাঠ শুষ্ক করার কাজে। আম্পায়ারদ্বয় মাঠে নেমেছেন মাঠ পরিদরশন করতে। সরিয়ে ফেলা হচ্ছে কাভার।

থেমেছে বৃষ্টিঃ

বৃষ্টিতে খেলা বন্ধ হয়ে ১ টায় শুরু হবার পর ৩ টা ১০ অব্দি দ্বিতীয় সেশনের খেলা হবার কথা ছিলো। তবে ১৩ বল মাঠে গড়ানোর পরেই নামে বৃষ্টি। সেই বৃষ্টি থামলো বেলা ৩ টায়।

EEAx7SJUUAAtwPU

আবার বৃষ্টিঃ

বেলা ১ টায় বৃষ্টির পর খেলা শুরু হয়েছিলো। তবে খেলা স্থায়ী হলো কেবল ১৩ বল। তারপর আবার বৃষ্টি চট্টগ্রামে। বাংলাদেশের রান বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৪৩। ৪৪ রানে আছেন সাকিব আল হাসান, ২ রান করে আছেন সৌম্য সরকার।

EEAWRHhU4AA FUk

একটা থেকে খেলা শুরুঃ

বৃষ্টির বিশ্রাম দীর্ঘায়িত হয়েছে। এর মধ্যে কাভার সরানো হয়েছে। খেলা শুরু হবে বেলা ১ টা থেকে। আর বৃষ্টি না হলে খেলা হবে মোট ৬৩ ওভার। বেলা ১ টা থেকে ৩ টা ১০ পর্যন্ত দ্বিতীয় সেশন, ২০ মিনিট চা বিরতির পর ৩ টা ৩০ থেকে ৫ টা ৩০ পর্যন্ত শেষ সেশন।

একটু বিশ্রাম নিচ্ছে বৃষ্টিঃ

এই আসছে আবার এই থামছে। তবে আপাতত বিশ্রামে বৃষ্টি। আবার শুরু হয়েছে কাভার সরিয়ে মাঠ শুকানোর কাজ।

EEAHB07U8AAD bF

আবার ফিরেছে বৃষ্টিঃ

চট্টগ্রামে থেমেছিলো বৃষ্টি, উকি দিয়েছিলো সূর্যও। মাঠকর্মীরা মাঠ শুষ্ক করার কাজেও নেমে পড়েছিলেন। তবে তাঁদেরকে বিশ্রামে পাঠিয়ে আবারো নেমেছে বৃষ্টি।

কমেছে বৃষ্টিঃ

চট্টগ্রামে এই মুহূর্তে কমেছে বৃষ্টি। সকাল থেকে অন্ধকারাচ্ছন্ন থাকলেও মাঠ এখন কিছুটা উজ্জ্বল। উইকেট অবশ্য কাভার দিয়েই ঢাকা। বাংলাদেশ দল মাঠে পৌঁছাবে দ্রুতই। তবে আউটফিল্ড খেলার উপযোগী করতে গ্রাউন্ডসম্যানদের খাটতে হবে বেশ।

চট্টগ্রামে বৃষ্টি
ছবিঃ মাসুদ পারভেজ

আপাতত অবশ্য সুখবর নেই আফগানিস্তান দলের জন্য। সকাল থেকেই বৃষ্টি হচ্ছে চট্টগ্রামে, তাতে সকাল ৯ঃ৩০ মিনিটে খেলা আরম্ভ হবার কথা থাকলেও এখনো বৃষ্টি বাগড়ায় খেলা শুরু করা যায়নি।

আফগানিস্তান দল অবশ্য হোটেল থেকে পৌঁছে গেছে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

‘আমরা আগেই জানতাম বাংলাদেশ আমাদের খেলতে হিমশিম খাবে’

Read Next

স্মিথের কাছে বিপর্যস্ত ইংল্যান্ড, অ্যাশেজ যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়ায়

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
15
Share