বৃষ্টির বদান্যতায় ম্যাচ গড়ালো ৫ম দিনে

চট্টগ্রামে বৃষ্টি

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে তৃতীয় দিন শেষে- আফগানিস্তান ৩৪২ ও ২৩৭/৮, বাংলাদেশ ২০৫/১০; আফগানিস্তান ২ উইকেট হাতে রেখে ৩৭৪ রানে এগিয়ে ছিলো।

বৃষ্টির বদান্যতায় ম্যাচ গড়ালো ৫ম দিনেঃ

আজকের দিনের শুরু থেকেই ছিল বৃষ্টির বাগড়া। দিনের খেলা শেষ হবার আগেই থামতে হয়েছে।

৪৪.২ ওভার ব্যাটিং করে বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে স্কোরবোর্ডে জমা করেছে ১৩৬ রান। হারিয়েছে ৬উইকেট। ৪৬ বলে ৪ চারে ৩৯ রান করে অপরাজিত আছেন সাকিব আল হাসান। ৫ বল খেলে কোন রান না করা সৌম্য আছেন সাকিবের সঙ্গে। ৪৬ রান খরচে ৩ উইকেট নেওয়া রাশিদ খান আফগানদের হয়ে সফলতম বোলার।

শেষ বাংলাদেশের দরকার ২৬২ রান, আফগানিস্তানের ৪ উইকেট। ৫ম দিনে খেলা শুরু হবে ৯ টা ৩০ মিনিটে।

ইব্রাহিমকে ক্যাচিং প্র্যাকটিস করালেন মাহমুদউল্লাহঃ

প্রথম ইনিংসে রাশিদ খানের বলে বোল্ড হয়েছিলেন ব্যক্তিগত ৭ রানের মাথায়। দ্বিতীয় ইনিংসেও ঐ ৭ রান করেই আউট হলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। দুই দফাতেই বোলারের নাম রাশিদ খান। দ্বিতীয় ইনিংসে অবশ্য বোল্ড হননি, শর্ট লেগে দাঁড়িয়ে থাকা ইব্রাহিম জাদরানকে ক্যাচিং প্র্যাকটিসই যেনো করালেন মাহমুদউল্লাহ।

ফিরে গেলেন সাদমানওঃ

অন্য প্রান্ত থেকে সতীর্থদের যাওয়া আসার মিছিল দেখছিলেন। লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন, মুশফিকুর রহিম, মুমিনুল হকের বিদায় দেখেছেন। অতঃপর সাজঘরে ফিরলেন সাদমানও। ১১৪ বলে ৪ চারে ৪১ রান করা সাদমানকে এলবিডব্লিউ করে ফেরান মোহাম্মদ নবি।

সাকিবের সঙ্গে জুটি বেধেছেন সাদমানঃ

মুমিনুল হকের বিদায়ের পর চা বিরতির আগ অব্দি ৮.২ ওভার একসাথে উইকেটে থেকে ২০ রান তুলেছেন সাকিব আল হাসান ও সাদমান ইসলাম অনিক। ১০১ বল খেলা সাদমান অপরাজিত ৩৯ রান করে, ২৩ বল খেলে ১৪ রান করে চা বিরতিতে গেছেন সাকিব আল হাসান।

রাশিদের দ্বিতীয় শিকার মুমিনুলঃ

নিজের করা তৃতীয় ওভারের প্রথম বলে সাজঘরে ফিরিয়েছেন মুশফিকুর রহিমকে। চতুর্থ ওভারের চতুর্থ  বলে রাশিদ খান সাজঘরের পথ ধরান মুমিনুল হককে। মুশফিকের মতো অবশ্য রিভিউ নষ্ট করেননি মুমিনুল। ৮ বলে ৩ রান করে হতাশ হয়ে ফিরতে হয়েছে মুমিনুলকে।

আশা জাগিয়ে ফিরলেন মুশফিকুর রহিমঃ

শুরুটা করেছিলেন ভালোই, পজিটিভ ব্যাটিংয়ে রান করছিলেন। তবে ৪ চারে ২৫ বলে ২৩ রান করা মুশফিকুর রহিমকে এলবিডব্লিউ করে ফিরিয়েছেন রাশিদ খান। মুশফিক অবশ্য রিভিউ নিয়েছিলেন, তাতে লাভ হয়নি।

মোসাদ্দেকের ব্রেইন ফেইডঃ

লিটন দাস আউট হবার পর ব্যাটিং অর্ডারে প্রমোশন নিয়ে তিনে নেমেছিলেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। তবে টিকলেন কেবল ১৭ বল। ১২ রান করা মোসাদ্দেক জহির খানের বল উড়িয়ে মারতে যেয়ে ধরা পড়েন আসগর আফগানের হাতে। চারে নেমেছেন মুশফিকুর রহিম।

রিভিউ নিয়ে বাঁচলেন লিটন, ফিরলেন ১ বল পরেঃ

লাঞ্চ বিরতির পর দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলে জহির খানের বলে ক্যাচ আউটের আবেদনে আঙুল তুলে দিয়েছিলেন নাইজেল লং। রিভিউ নিয়ে বাঁচেন লিটন তবে এক বল পরই এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন ব্যক্তিগত ৯ রানের মাথায়। তিনে নেমেছেন মোসাদ্দেক হোসেন।

 

লিটন-সাদমানে শুরুটা হলো ভালোঃ

১ম ইনিংসে সাদমান ইসলামের সঙ্গে ওপেন করতে নেমেছিলেন সৌম্য সরকার। দ্বিতীয় ইনিংসে সঙ্গী বদলেছে সাদমানের। ওপেন করতে নেমে আগে স্ট্রাইক নিয়েছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান লিটন কুমার দাস। লাঞ্চ বিরতির আগ অব্দি দুজন মিলে খেলেছেন ৯ ওভার। কোন বিপদ ঘটতে না দিয়ে দুজন রান তুলেছেন ৩০। ২৭ বল খেলে ২১ রান করে অপরাজিত আছেন সাদমান ইসলাম, সমান সংখ্যক বল খেলে ৯ রান করে অপরাজিত লিটন। জিততে হলে দরকার এখনো ৩৬৮ রান।

জয়ের লক্ষ্য ৩৯৮ঃ

৮ উইকেটে ২৩৭ রান নিয়ে চতুর্থ দিনের খেলা শুরু করেছিলো আফগানিস্তান। আজ বাকি দুই উইকেট হারিয়ে সফরকারীরা করেছে ২৩ রান। ৯ রান করে ইয়ামিন আহমেদজাই হয়েছেন রান আউট, কোন রান না করে মেহেদী হাসান মিরাজের বলে মুমিনুল হককে ক্যাচ দিয়ে আউট হয়েছেন জহির খান। ৪৮ রান করে অপরাজিত থাকেন আফসার জাজাই। বাংলাদেশকে জিততে হলে করতে হবে ৩৯৮ রান।

বৃষ্টি শেষে খেলা শুরুঃ

খেলা শুরু হয়েছে ১১ টা ৫০ মিনিটে, লাঞ্চ বিরতি ১টায়, চা বিরতি ৩ টা ৪০ মিনিটে, খেলা শেষ হবে ৫ টা ৪০ এ।

থেমেছে বৃষ্টি, সরানো হচ্ছে কাভার

আর নতুন করে বৃষ্টি শুরু না হলে উইকেট পর্যবেক্ষণ হবে ১১ টা ১৫ মিনিটে।

চট্টগ্রামে থেমেছে বৃষ্টি

কমেছে বৃষ্টি, মাঠে নেমেছে গ্রাউন্ডস্টাফ (১০ টা ৮ মিনিট)

চট্টগ্রাম বৃষ্টি

বৃষ্টির কারণে খেলা শুরু হতে বিলম্বঃ

আফগানদের বিপক্ষে মান বাঁচাতে বৃষ্টিই হতে আশীর্বাদ। ম্যাচের যে পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে তাতে বড় লজ্জাই অপেক্ষা করছে বাংলাদেশের জন্য। আর সেক্ষেত্রে চট্টগ্রাম টেস্টে চতুর্থ ও পঞ্চম দিনের বেশিরভাগ অংশ বৃষ্টিতে ভেসে গেলেই বেঁচে যায় বাংলাদেশ, আর প্রকৃতিও যেন সাকিবদের সমর্থন দিচ্ছে। পূর্বাভাস অনুযায়ী চতুর্থ দিন সকাল থেকেই গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি হচ্ছে চট্টগ্রামে, ফলে নির্ধারিত সময়ে মাঠে গড়াচ্ছেনা দিনের খেলা।

প্রথম ইনিংসে ৩৪২ রানে থামা আফগানরা বাংলাদেশকে গুটিয়ে দিয়েছে মাত্র ২০৫ রানে। ১৩৭ রানে এগিয়ে থাকা আফগানরা দ্বিতীয় ইনিংসে করে ফেলেছে ৮ উইকেটে ২৩৭, লিড এখনই ৩৭৪ । এই রান তাড়া করে জিততে হলেও বাংলাদেশকে রেকর্ড বইয়ে করতে হবে বেশ ওলটপালট। কিন্তু এখনই থামছেনা আফগানরা , তাদের লক্ষ্য বাংলাদেশকে ৪০০ এর মত লক্ষ্য ছুঁড়ে দেওয়া।

এমন পরিস্থিতিতে বৃষ্টিই চাইছে বাংলাদেশ ক্রিকেট সমর্থকরা, কারণ বাস্তবতা মানতে গেলে বাংলাদেশকে পড়তে হচ্ছে বড় লজ্জার সামনেই। যদিও টাইগার কাপ্তান বলছেন অবিশ্বাস্য রকম কিছু করে ঘটিয়ে দিতে পারেন দুর্দান্ত কিছু।

চট্টগ্রামের আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে চতুর্থ ও পঞ্চম দিন হবে ভালো বৃষ্টি, চতুর্থদিনে বৃষ্টির সম্ভাবনা ৬৫ ভাগ বলা হয়েছে। ইতোমধ্যে সকাল থেকে বৃষ্টি হওয়ায় সেটিই নিয়েছে বাস্তবরুপ। আজ (৮ সেপ্টেম্বর) খেলা হলেও সেটা যে থেমে থেমে হবে সেটা বোঝাই যাচ্ছে। এদিকে গতকালও বৈরী আবহাওয়ায় আলোকস্বল্পতার কারণে খেলা শেষ হয়েছে ২০ মিনিট আগে তাই আজ খেলা শুরু হওয়ার কথা ২০ মিনিট আগে। কিন্তু সকাল থেকে বৃষ্টিতে নির্ধারিত সময় পেরিয়ে গেলেও খেলা শুরু করা সম্ভব হয়নি।

উল্লেখ্য গতকাল আফগানদের দ্বিতীয় ইনিংসের নায়ক ইব্রাহিম জাদরান নিজেদের জয়ের সম্ভাবনার কথা জানাতে গিয়ে বলেছেন তারা ৭০ ভাগ আশাবাদী জয়ের ব্যাপারে। এখন দেখার বিষয় টাইগারদের বশে আনা আফগানরা বৃষ্টিকে কতটা নিজেদের পক্ষে নিতে পারে? জয়ের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা আফগানদের ম্যানেজার নাজিম জার আব্দুর রহিম প্রতিপক্ষ বাংলাদেশের চাইতে বেশি উদ্বিগ্ন আবহাওয়া পরিস্থিতি নিয়ে, গতকালই চট্টগ্রামের আবহাওয়া অফিস থেকে নিয়েছেন চতুর্থ ও পঞ্চম দিনের প্রতিবেদনও।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বাংলাদেশ তাকিয়ে বৃষ্টির দিকে, ৭০ ভাগ আশাবাদী আফগানরা

Read Next

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দিনে সানজিদার রেকর্ড, ওয়াকায় প্রথম বাংলাদেশী দল হিসেবে খেলবে নারীরা

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
7
Share