অভ্যস্ত হয়ে গেছেন মুমিনুল, টেস্ট বিশ্বকাপকে দেখছেন সেরা সুযোগ

মুমিনুল হক
Vinkmag ad

টেস্ট বিশ্বকাপ খ্যাত বহুল আলোচিত টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে, প্রায় বেশিরভাগ দল এর স্বাদ পেয়ে গেলেও বাংলাদেশের অপেক্ষাটা নভেম্বর পর্যন্ত। তবে এর আগেই আগামী মাসে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ঘরের মাঠে একটি টেস্ট খেলতে যাচ্ছে বাংলাদেশ, ভারতের বিপক্ষে নভেম্বরে মাঠে নামার আগে বেশ ভালো প্রস্তুতি হবে আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট বলছেন মুমিনুল হক। শুধু টেস্ট ম্যাচের অপেক্ষায় প্রহর গুণতে থাকা মুমিনুল নিজেকে প্রস্তুত রাখেন কীভাবে জানিয়েছেন সেটিও।

২০১৫ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর গত বছর এশিয়া কাপে খেলেছেন দুটি ওয়ানডে। আর টি-টোয়েন্টি জার্সিতে সবশেষ খেলেছেন ২০১৪ সালে তবে টেস্ট সিরিজ আসলেই ডাক পড়ে মুমিনুলের। টেস্টে ধারাবাহিক সফলতা তাকে টেস্টে স্থায়ী করেছে ঠিকই কিন্তু সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সে এসেছে নাজুকতা। নিয়মিত ৬০ এর বেশি গড়ে মুমিনুল হকের বর্তমান টেস্ট গড় মাত্র ৪১.৯৩! মূলত শুধু এক ফরম্যাটে খেলেন বলেই সমস্যা দেখছেন অনেকে, কেউ আবার দুষছেন প্রাক্তন কোচ হাথুরুসিংহকে। গুঞ্জন আছে হাথুরুর পছন্দের তালিকায় ছিলেননা বলে বেশ ভোগান্তিতে পড়তে হত বাংলার লিটল মাস্টারকে।

আসন্ন ভারত সফরে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রসঙ্গ টেনে মুমিনুল সাংবাদিকদের জানান,” টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ অনেক বড় সুযোগ আমার জন্য। আমার মনে হয় ভালো প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়। ভারত বেশ শক্তিশালী দল। তার আগে ভালো স্পিন অ্যাটাকের বিপক্ষে (আফগানিস্তান) খেলা আমাদের জন্য সুবিধার হবে। কারণ উপমহাদেশে তাদের স্পিন কতটা ভয়ঙ্কর সবাই জানে। সেদিক চিন্তা করলে ভারত সিরিজের আগে খুব ভালো সুযোগ আমাদের জন্য।”

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কেবল টেস্ট ফরম্যাটেই খেলছেন, বছরে অন্যান্য দলের তুলনায় ম্যাচ সংখ্যা বাংলাদেশের কম বলে সুযোগটাও আসে অনেক লম্বা বিরতির পর। সেক্ষেত্রে মুমিনুল হকের জন্য মানিয়ে নেওয়াটা আসলে কষ্টকরই হওয়ার কথা। তিনি নিজে বলছেন অভ্যস্ত হয়ে গেছেন বলে সমস্যা হয়না, “বিষয়টি আগেও বলেছি আমার মানসিকভাবে শক্ত থাকতে হয়, পাশাপাশি ফিটনেসও ঠিক রাখতে হয়। আমার তেমন সমস্যা হবেনা কারণ অভ্যস্ত হয়ে গেছি। কদিন আগেও চারদিনের একটি ম্যাচ খেলেছি। আসলে বিষয়টা জটিল ভাববে জটিল এই আরকি!”

দেশের ক্রিকেটে হাথুরু অধ্যায় চলাকালীন বড় একটা ইস্যু ছিল মুমিনুলের হাথুরুর পছন্দের তালিকায় না থাকা। অনেক ম্যাচেই বাদ দেওয়ার জোর চেষ্টা ছিল, কিছু ম্যাচে দিয়েছেনও যার প্রভাব পড়েছে মুমিনুলের ব্যাটিংয়েও। নবনিযুক্ত রাসেল ডোমিঙ্গোর ক্ষেত্রে কি হতে পারে এমন প্রশ্নে মুমিনুল দিয়েছেন সোজাসাপটা উত্তর ফিট আর পারফর্ম থাকলে বাদ দেওয়ার ক্ষমতা নেই কারও,” কোচ কি চাচ্ছে না চাচ্ছে তা না ভেবে নিজের কাজটাই ঠিকঠাক করা উচিত মনে করি। আপনার যদি ফিটনেস, ব্যাটিং-বোলিং ভালো থাকে তখন বিশ্বের যেকোন ভালো কিংবা খারাপ কোচই আপনাকে দলে নিবে।”

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

গ্যাব্রিয়েল-রোচদের জবাব দিলেন রাহানে-রাহুলরা

Read Next

বাংলাদেশের সহ, টুর্নামেন্টের সবগুলো ম্যাচ সরাসরি দেখাবে আইসিসি

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share