চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির প্রথম দল হিসেবে সেমিতে ইংল্যান্ড

match report 13
Vinkmag ad
264075
‘সেমি-ফাইনাল!’

টানা দুই ম্যাচে দুই জয় নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির অষ্টম আসরে প্রথম দল হিসেবে সেমিফাইনালের টিকিট পেলো স্বাগতিক ইংল্যান্ড। ইংল্যান্ড আর ওয়েলসের মাঠেই গড়িয়েছে এবারের চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি। তাই স্বাগতিকদের উপর সবার প্রত্যাশাটাও ছিল সীমাহীন। এ যাত্রায় সে চাপটা বেশ ভালই সামলে টুর্নামেন্টে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে নিউজিল্যান্ডকে পরাজিত করে সেমিতে পা রাখলো থ্রি লায়ন্সরা।

জো রুট, অ্যালেক্স হেলস আর উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান জশ বাটলারের তিন অর্ধশতকে ভর করে টস হেরে ব্যাট করতে নামা ইংলিশরা নির্ধারিত ৫০ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করে ৩১০ রান। জবাবে ২২৩ রানে কিউইরা অলআউট হলে ইংল্যান্ড ম্যাচ জিতে নেয় ৮৭ রানে।

264071
প্রথম ওভারেই লুক রঙ্কিকে ফিরিয়ে দেয়া জ্যাক বল হয়েছেন ম্যাচের সেরা।

৩১১ রানের জবাবে নিউজিল্যান্ডের শুরুটা মোটেও ভাল হয়নি। ইনিংসের প্রথম ওভারে নিজের মোকাবেলা করা প্রথম বলেই লুক রঙ্কি সরাসরি বোল্ড হন জ্যাক বলের নিখুঁত লক্ষ্যভেদে। ওয়ান ডাউনে নামা কিউই কাপ্তান কেন উইলিয়ামসন আরেক উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান মার্টিন গাপটিল আর রস টেইলরকে নিয়ে শুরু করেন নিউজিল্যান্ড ইনিংস মেরামতের কাজ।

264074
একাই লড়ে যাওয়া নিঃসঙ্গ কিউই কাপ্তান কেন উইলিয়ামসনের ব্যাট থেকে এসেছে ম্যাচেরই সর্বোচ্চ ইনিংস (৮৭)।

দলীয় ১৫৮ রানের মাথায় উইলিয়ামসন বিদায় নেন ৮৭ রান করে। মাত্র ১৩ রানের জন্য শতক বঞ্চিত হওয়া কিউই দলপতি নিজের ইনিংস সাজিয়েছেন ৮টি চার হাঁকিয়ে, ৯৮ বল খেলে। ব্যস! কিউই ইনিংসের গল্প অতটুকুই। এর ১০ রান পরে অভিজ্ঞ রস টেইলর ইনিংসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৯ রান করে ফিরে গেলে শুরু হয় ব্যাটসম্যানদের আসা-যাওয়ার মিছিল।

লিয়াম প্ল্যাংকেট চার উইকেট নিয়ে একাই ধসিয়ে দেন নিউজিল্যান্ডের মিডল অর্ডার এবং টেইল-এন্ডার। সাথে পেসার জ্যাক বল এবং স্পিনার আদিল রশিদ তুলে নেন দুটি করে উইকেট। ৩৩ বল আগে কিউইদের ইনিংস শেষ হয় ২২৩ রানে। ৮ ওভারে ৩১ রান দিয়ে দারুণ নিয়ন্ত্রিত বল করে দুই উইকেট শিকার করা জ্যাক বলকেই ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ ঘোষণা করা হয়।

264078
ইংলিশদের পক্ষে সর্বোচ্চ চার উইকেট তুলে নিয়েছেন পেসার লিয়াম প্ল্যাংকেট।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ডঃ

ইংল্যান্ডঃ ৩১০/১০ (৪৯.৩ ওভার) জো রুট ৬৪, জশ বাটলার ৬১*, অ্যালেক্স হেলস ৫৬, বেন স্টোকস ৪৮। কোরি অ্যান্ডারসন ৩/৫৫, অ্যাডাম মিলনে ৩/৭৯

নিউজিল্যান্ডঃ ২২৩/১০ (৪৪.৩ ওভার) কেন উইলিয়ামসন ৮৭, রস টেইলর ৩৯, মার্টিন গাপটিল ২৭, জিমি নিশাম ১৮। লিয়াম প্ল্যাংকেট ৪/৫৫, জ্যাক বল ২/৩১, আদিল রশিদ ২/৪৭, মার্ক উড ১/৩২, বেন স্টোকস ১/৪৬

ফলাফলঃ ইংল্যান্ড ৮৭ রানে জয়ী।

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচঃ জ্যাক বল (ইংল্যান্ড)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বিসিসিআইয়ের সামর্থ্য নিয়ে সন্দিহান ওয়ার্ন

Read Next

টাইগারদের সেমিফাইনাল অঙ্ক

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share