মাই গড! মেয়েটি কী সুন্দরঃ অ্যান্ডারসন

tydry
Vinkmag ad

টেস্টে সেরা বোলিং জুটি কারা? সেরা পেস জুটিই বা কোন ‘মানিকজোড়’? শুধু পেস জুটি বিবেচনায় নিলে ব্রডারসন জুটিই তাই ইতিহাস সেরা। অ্যান্ডারসনের আত্মজীবনী ‘বোল, স্লিপ, রিপিট’-এ লেখা বন্ধু ব্রডকে নিয়ে মজার ঘটনা তুলে আনলেন অ্যান্ডারসন। ঢেউ খেলানো ব্লন্ড চুল, অসাধারণ নীল চোখ আর দুর্দান্ত চেহারা। আর এই রূপেই মজেছিলেন জিমি অ্যান্ডারসন। কিংবদন্তি ইংলিশ পেসার প্রথম দর্শনে তাঁর সতীর্থ স্টুয়ার্ট ব্রডকে মেয়ে ভেবেই ভুল করেছিলেন। এই মজার কথাই তিনি ভাগ করে নিয়েছেন নিজের আত্মজীবনী ‘বোল, স্লিপ, রিপিট’-এ। ব্রড যখন প্রথমবার ড্রেসিংরুম দিয়ে হেটে যাচ্ছিলো ওর চুলের স্টাইল, নীল চোখ সঙ্গে দারুণ শারীরিক গঠন দেখে আমি বলেছিলাম, ‘মাই গড, সী ইজ বিউটিফুল’।

D4bFIOZW4AAt7Af

অ্যান্ডারসনের বইয়ের কিছু নির্বাচিত অংশ নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ ট্যবলয়েড ‘দ্য সান’। অ্যান্ডারসন বলছেন,

“স্টুয়ার্ট ব্রডকে যখন প্রথমবার ড্রেসিংরুমে দেখেছিলাম, মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিলাম। ঢেউ খেলানো ব্লন্ড চুল, দুর্দান্ত নীল চোখ আর অসাধারণ চেহারা দেখে আমি বলেই ফেলেছিলাম, মাই গড! মেয়েটি কী সুন্দর! এখন ভাবলে অবাক লাগে আমরা জুটি বেঁধে ১০০০ উইকেট নিয়ে ফেলেছি একসঙ্গে।”

Image result for stuart broad james anderson fun

দুজনই ইংল্যান্ড দলের বিখ্যাত পেসার। ক্রিকেটবিশ্বে দুজনের বিশাল তারকাখ্যাতি রয়েছে। ব্যাটসম্যানদের জন্য আতঙ্কের নামও এই দুজন। সেই স্টুয়ার্ট ব্রড আর জেমস অ্যান্ডারসনের একটা মজার গল্প আছে। তাদের প্রথম দেখার সেই গল্প। ঢেউ খেলানো ব্লন্ড চুল, অসাধারণ নীল চোখ আর দুর্দান্ত চেহারার তরুণ ছিলেন ব্রড। আর এই রূপেই মজেছিলেন জিমি অ্যান্ডারসন। কিংবদন্তি ব্রিটিশ পেসার প্রথম দর্শনে তাঁর সতীর্থ স্টুয়ার্ট ব্রডকে মেয়ে ভেবেই ভুল করেছিলেন!

অ্যান্ডারসন বলছেন কখনই তাঁর সঙ্গে ব্রডের বা অনান্য বোলারদের প্রতিযোগিতা ছিল না। তিনি জানিয়েছেন ব্রড বাউন্স করত আর সিমের ওপর বল মুভ করাত। অন্যদিকে তিনি বল স্কিড করান।  অ্যান্ডারসন বলছেন, তাঁরা বোলিং নিয়ে প্রচুর আলোচনা করেন। এই আলোচনাতেই দু’জনে উপকৃত হয়েছে। অ্যান্ডারসন আরও একটা মজার ঘটনা ভাগ করে নিয়েছেন। তাঁর কথায় স্পষ্ট যে, তিনি আর ব্রড দু’জনেই ঘুমাতে ভালবাসেন।

227337

অ্যান্ডারসন বলছেন,

“আমাদের একটা বিষয় খুব মিল আছে। আমরা দু’জনেই চেষ্টা করি আরও অতিরিক্ত আধ ঘণ্টা বেশি বিছানায় কাটাতে। যখন সকলে সবার আগে প্র্যাকটিসে চলে আসে। আমরা সবার শেষে যাই সেখানে।”

অ্যান্ডারসনের ৫৭৫, ব্রডের ৪৩৭—টেস্টে দুজনের উইকেটসংখ্যা। তবে দুজনই খেলেছেন এমন ম্যাচ হিসাবে নিলে ব্রডারসনের উইকেট হবে ৮৬১, ১১১ টেস্টে। একসঙ্গে খেলেছেন এমন টেস্টে হাজার উইকেট কেবল এক জুটিরই আছে। জুটির নামটা অনেকে অনুমানও করে ফেলতে পারছেন নিশ্চয়ই। ১০৪ টেস্টে ম্যাকগ্রা-ওয়ার্ন জুটির ১০০১ উইকেট। মুরালিধরন-ভাস জুটি একসঙ্গে ৯৫ টেস্ট খেলে ৮৯৫টি উইকেট নিয়েছিলেন। ব্রড-অ্যান্ডারসন জুটি আছে তিনে।

97 Desk

Read Previous

মাশরাফির নেতৃত্ব আর মুশফিকের লড়াকু মনোভাবকে এগিয়ে রাখছেন হার্শা

Read Next

কোহলি-ইমাদদের শুভকামনা জানালেন ডেভিড লুইজ

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share