‘নতুন পথের যাত্রা’ শুরু বাংলাদেশের

bangladesh 1
Vinkmag ad

আক্ষেপ অনন্ত কালের, আক্ষেপ ১০ বছরের! যেভাবেই বিশেষায়িত করেন, বাংলাদেশ ক্রিকেটের পথচলার পর থেকে পাওয়া হয়নি একটা বহুজাতিক টুর্নামেন্টের শিরপোর স্বাদ। ২০০৯ থেকে ১৬ মে ২০১৯ পর্যন্ত ৬ খানা ফাইনাল খেলেও প্রতিবারই পুড়তে হয়েছে হতাশা আর আক্ষেপে। অবশেষে হাসলো মেলাহাইড, খানিক প্রলেপ দিলো আগের ক্ষততে। তীর্থের কাক হয়ে চেয়ে থাকা যেই ট্রফির জন্য, সেই শিরোপা হাতে নিয়ে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক বললেন, শুরু হলো নতুন পথের যাত্রা।

FB IMG 1558124314003

২০০৯ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজ, ২০১২ পাকিস্তানের বিপক্ষে এশিয়া কাপ, ২০১৬ ভারতের বিপক্ষে এশিয়া কাপ (টি-টোয়ন্টি ফরম্যাট), ২০১৮ ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজ, ২০১৮ ভারতের বিপক্ষে এশিয়া কাপ এবং সবশেষ ওই বছরেই অর্থাৎ ২০১৮ সালে আলোচিত নিদাহাস ট্রফিতে ভারতের বিপক্ষে হার। ১, ২, ৩ করে একে একে টানা ৬ ফাইনালে স্বপ্ন ভঙ্গ, খুব কাছে যেয়ে ধরা হয়নি শিরোপাখানা। অবশেষে ৭ বারের সুযোগে আসলো সেই মাহেন্দ্রক্ষণ, বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে উইন্ডিজকে কুপোকাত করে মাশরাফি বিন মর্তুজার দলের বাজিমাত।

যার শুরুটা মোটেও ছিলো না সুখকর। ডাবলিনের ফাইনালে বৃষ্টির তোপে প্রথম ইনিংসে নির্ধারিত ২৪ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে উইন্ডিজ সংগ্রহ করে ১৫২ রান। ডার্ক লুইস পদ্ধতি অনুযায়ী বাংলাদেশের সামনে দাঁড়ায় ২১০ রানের পাহাড় টপকানোর লক্ষ্য, সেই লক্ষ্য ছুঁতে নেমে সৌম্য সরকারের ব্যাটিং তাণ্ডবের পর মোসাদ্দেকের দ্রুততম ফিফটিতে ৭ বল হাতে রেখেই ৫ উইকেটের জয় পায় বাংলাদেশ। আর অবশেষে ‘লাকি সেভেন’ ফলে গেল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের জন্য।

এই জয়কে পুরোপুরি টিমওয়ার্ক হিসেবে ব্যাখ্যা করেন টাইগার দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা। সবাইকে কৃতিত্ব দিয়ে তিনি বলেন, ‘এ জয়টা পুরোপুরি টিমওয়ার্কের ফল। ব্যাটিংয়ের শুরুতে দারুণ জুটি গড়েছিল তামিম এবং সৌম্য। যেমন দরকার ছিল তেমন ব্যাটিং করলো সৌম্য। মাঝে মুশফিক রানের চাকা সচল রেখেছে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে সে আউট হলেও মোসাদ্দেক এবং মাহমুদউল্লাহ দুর্দান্ত ফিনিশিং দিয়েছে। সত্যিই দারুণ দলীয় পারফরম্যান্স।’

60342524 2724917517524904 3692376924740386816 n

মাশরাফি আরও যোগ করেন, ‘অধিনায়ক হিসেবে বলব, এটাই আমাদের নতুন পথের যাত্রা শুরু। এতদিন ধরে বারবার থেমে যেতে হয়েছিল ফাইনালে। আজকে শেষ করলাম শিরোপা জিতে। আশা করি এটা চলমান থাকবে।’

 

ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা জেতার পর এবার সামনে বড় চ্যালেঞ্জ, অপেক্ষায় বিশ্বকাপ। তবে এই শিরোপা বিশ্বকাপে টাইগারদের আত্মবিশ্বাসে রসদ যোগাবে বলে মত মাশরাফির, ‘অবশ্যই বিশ্বকাপ আরও বেশি চ্যালেঞ্জিং হবে। সেখানে উইকেট আরও ফ্ল্যাট থাকবে। বোলারদের জন্য অনেক চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে। আজকের ম্যাচ আমাদের বড় লক্ষ্য তাড়া করায় আত্মবিশ্বাস দেবে, বিশেষ করে এমন কোনো ম্যাচে যখন পরে ব্যাট করতে হবে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

দেশে ফিরছেন তাসকিন সহ ৫ ক্রিকেটার

Read Next

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ জয়, বিশ্বকাপ জয়ের সমতুল্য!

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share