দুই প্রাইমের লড়াইয়ে দোলেশ্বরের জয়

prime bank 2
Vinkmag ad

চলতি ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ (ডিপিএল) ক্রিকেটের সুপার লিগের ম্যাচে জয় পেয়েছে প্রাইম দোলেশ্বর। অভিজ্ঞ শাহরিয়ার নাফিস ও মার্শাল আইয়ুবের ব্যাটিং দৃঢ়তায় প্রাইম ব্যাংকের বিপক্ষে ৬ উইকেটের জয় তুলে নেয় দোলেশ্বর। সুপার লিগের দ্বিতীয় রাউন্ড শেষে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স ও আবাহনীর মতো দোলেশ্বরের ঝুলিতেও ২০ পয়েন্ট।

এদিন সকালে সাভারে বিকেএসপির চার নম্বর মাঠে দোলেশ্বরের কাপ্তান ফরহাদ রেজা টসে জিতে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় প্রাইম ব্যাংককে। দলীয় ৫১ রানে উদ্বোধনী জুটি ভাঙ্গে প্রাইম ব্যাংকের। উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান জাকির হাসান ব্যক্তিগত ১১ রানে আরাফাত সানির শিকার হয়ে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফেরেন।

আরেক ওপেনার মেহেদী মারুফের ব্যাট থেকে আসে ৪৪ রান। ফর্মে থাকা ভারতীয় অভিমন্যু ইয়াশভারান ৯৩ বলে পাঁচটি চার এবং একটি ছয়ের মারে ইনিংস সর্বোচ্চ ৭১ রান করে তারই স্বদেশী রজত ভাটিয়ার শিকার হোন। ৭১ বলে ৬২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে প্রাইম ব্যাংকের কাপ্তান আসিফ আহমেদ দলকে লড়াই করার মত পুঁজি এনে দেন। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে প্রাইম ব্যাংকের বোর্ডে জমা হয় আট উইকেট হারিয়ে ২৪১ রান। দোলেশ্বরের হয়ে তিনটি উইকেট নেন ভারতীয় ভাটিয়া। ডিপিএলে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা আরাফাত সানি নেন দুটি উইকেট।

২৪২ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে দলীয় ২৫ রানের মাথায় ওপেনার আব্দুল মজিদকে হারায় দোলেশ্বর। আরেক ওপেনার ইমতিয়াজ হোসেন দলীয় ৫৮ রানে ফিরে যান। তৃতীয় উইকেট জুটিতে ১৪২ রান সংগ্রহ করে অভিজ্ঞ শাহরিয়ার নাফিস ও মার্শাল আইয়ুব দোলেশ্বরের জয় অনেকটাই নিশ্চিত করে দেন।

দশটি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে দোলেশ্বরের ইনিংস সর্বোচ্চ ৮৪ রান করেন মার্শাল। তিনে খেলতে নামা শাহরিয়ার নাফিস খেলেন ৭৮ রানের কার্যকরী ইনিংস। দলীয় দু’শো রানের মাথায় এই দুইজন ফিরে গেলেও ভাটিয়া ২৩ রান ও কাপ্তান ফরহাদ রেজার ১১ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। ইনিংসের আট বল বাকি থাকতে চার উইকেট হারিয়েই প্রাইম ব্যাংকের দেওয়া লক্ষ্যমাত্রা পার করে ফেলে প্রাইম দোলেশ্বর। ৮৪ রানের জন্য ম্যাচসেরা হয়েছেন দোলেশ্বরের মার্শাল আইয়ুব।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ২৪১/৮ (৫০) অভিমন্যু ইয়াশভারান ৭১, আসিফ আহমেদ ৬২
ভাটিয়া ৩/৫০, আরাফাত সানি ২/৪০

প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব ২৪২/৪ (৪৮.৪) মার্শাল আইয়ুব ৮৪, শাহরিয়ার নাফিস ৭৮
রায়হান ২/২৮

ম্যাচসেরাঃ মার্শাল আইয়ুব। (প্রাইম দোলেস্বর)

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

নাসির-রনির কল্যাণে বড় ব্যবধানে জিতলো গাজী

Read Next

তামিম তান্ডবে রান পাহাড়ে বাংলাদেশ

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share