আলীর পরামর্শে উজ্জীবিত হচ্ছেন শান্তরা

1538017937406
Vinkmag ad

বারবার তীরে এসে তরী ডুবছে বাংলাদেশ দলের। নকআউট পর্বের ম্যাচে যেনো কোনভাবেই পেরে উঠছে না টাইগাররা। কঠিন সময় পার করে শেষ পর্যন্ত ম্যাচ টেনে নিয়ে যেতে পারলেও মিলছেনা জয়ের দেখা। সেই সাথে আছে তরুণ ক্রিকেটারদের নিয়মিত ব্যর্থতা। তাইতো এই সমস্যাগুলা ঠিকঠাক উৎরাতেই ক্রিকেটারদের জন্য মনোবিদ নিয়োগ দিয়েছে বিসিবি। সেখানেই মনোবিদ আজহার আলীর ক্লাস করে চাপে ভেঙে না পড়ে মানসিক শক্তি সঞ্চয়ের দীক্ষা নিচ্ছেন ক্রিকেটাররা।

ক্রিকেটকে ‘মনস্তাত্ত্বিক’ খেলা হিসাবেই ধরে থাকা হয়ে থাকে। বাইশ গজে ব্যাট-বলে নিজেরদের আভিজাত্যটা দেখেলাও এই মানুসিক ব্যাপারটার কাছে বারংবারই এসে ধরাশায়ী হচ্ছে বাংলাদেশ দল। ম্যাচের টানাটান উত্তেজনাকর মুহূর্তটাতে এসে হারিয়ে ফেলছে খেই। তাইতো নেতিবাচক ভাবনাগুলো বাসা বাধেঁ মনের কোণে। ক্রিকেটারদের এমন সমস্যার কারণটা নাকি মানসিক। সেকারণেই মনোবিদ আলী আজহারের শরণাপন্ন হলো বিসিবি।

Dnicai3VYAAeJ3y
ফাইল ছবি

সেই আলীর ক্লাস করে নিজেদের ভাবনার জগতে যে পরিবর্তন আসছে সেটা বোঝা গেলো তরুণ ক্রিকেটার নাজমুল হাসান শান্তর মুখে। শান্ত বলেন, ‘পজিটিভ দিকগুলো বরে হয়েছে, নেগেটিভ বিষয়গুলোও বরে হয়েছে, নেগেটিভ যে চিন্তাগুলো আমরা করি বা করতাম সেখান থেকে কীভাবে বের হতে পারবো, সেই বিষয়গুলো নিয়ে কথা বার্তা হয়েছে। অনেক কিছু জানতে পেরেছি আমরা, আস্তে আস্তে সে বিষয়গুলো নিয়ে কাজ করবো।’

এশিয়া কাপে ওয়ানডে অভিষেক রাঙ্গাতে পারেননি শান্ত। পারেননি নিজের জাত চেনাতে। শান্ত বিসিবির রাডারে ছিলেন বহু আগে থেকে। আছেন এখনো। তাইতো আরেকবার সুযোগ পেয়েছেন ঘরের মাঠে আসন্ন জিম্বাবুয়ে সিরিজে। এবার মনোবিদের কথাই হয়ত গেঁথে নিয়েছেন অন্তরে। ভুলতে চান নেতিবাচক ভাবনা। শান্ত বলেন, ‘তিনটা ম্যাচ খারাপ খেলেছি, এটা ক্রিকেট খেলায় হয়। ওইভাবে নিজেকে তৈরি করে প্রস্তুতি শুরু করেছি। আমি এখন পর্যন্ত নেগেটিভ কোনো কিছু চিন্তা করতেছিনা।’

তিনি আরো যোগ করেন, ‘স্টিভ রোডস আমাকে প্রথম দিন থেকে খুব ভালভাবে সাপোর্ট দিচ্ছে, টেকনিক্যাললি, মেন্টালি সব দিক থেকে সার্পোট দিয়ে যাচ্ছে।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

‘সৌম্য কিন্তু আমাদের চোখের আড়াল হয়নি’

Read Next

আব্বাসে ‘১ নম্বর’ টেস্ট বোলার দেখছেন স্টেইন

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share