সমর্থকদের ভালোবাসাতে আপ্লুত সাকিব-পত্নী

featured photo1 4

দেশের ক্রিকেটে আস্থার এক নাম সাকিব আল হাসান। দেশের তো বটেই, দীর্ঘদিন ধরে বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডারও তিনি। তার ইনজুরিতে মাঠের বাইরে থাকাটা তাই খুব বেশি স্বস্তির ব্যাপার নয়। আর আঙুলের এই ইনজুরি নিয়ে জল কম ঘোলা হয়নি। একটু উনিশ বিশ হলে পচন ধরতে পারতো আঙুলে, তা ছড়িয়ে পড়তে পারত হাতে। তাইতো প্রিয় ক্রিকেটারের আরোগ্য কামনা করে দেশের বিভিন্ন মসজিদে দো’আ ও মিলাদের আয়োজন করেছেন সমর্থকেরা। যা দেখে আবেগে আপ্লুত হয়েছে সাকিব-পত্নী শিশির।

আজই অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন হাসপাতাল ছেড়েছেন সাকিব। তবে দেশে ফিরতে পারছেন না এখনই। প্রত্যাশার থেকে দ্রুত সেরে উঠলেও মাস তিনেক আর বাইশ গজে এই বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারকে পাওয়া যাবে না তা একপ্রকার নিশ্চিতই। এই তিন মাসের মধ্যে সুস্থ হতে পারলে হয়তো ২০১৯ সালের জানুয়ারির ৫ তারিখ থেকে অনুষ্ঠেয় বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) দিয়ে আবার মাঠ মাতাতে দেখা যেতে পারে সাকিবকে।

তবে তার আগে প্রয়োজন সুস্থতা। সেই সুস্থতার জন্য দেশবিদেশ কম ছুটেছেন না এই বাঁহাতি অলরাউন্ডার। প্রিয় ক্রিকেটারের এমন কষ্ট তাই বেশ পোড়াচ্ছে সকর্থকদের, তাইতো সাকিবের সুস্থতা কামনাতে আজ (শুক্রবার) দেশের বিভিন্ন স্থানে দো’আ ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেছিলো ভক্তরা। যা অনুষ্ঠিত হয় দেশের দশটি মসজিদে।

18620110 10158656861920394 5501042618256952845 n
স্ত্রী ও মেয়ের (আলাইনা) সঙ্গে সাকিব আল হাসান

আর এতেই বেশ আপ্লুত হয়েছে সাকিব-পত্নী শিশির। এনিয়ে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি লেখাও শেয়ার করেছেন তিনি। যেখানে শিশির লিখেছেন, ‘এটা প্রকাশ করার মতো ভাষা আমার জানা নেই। এই মানুষগুলো সাকিব আল হাসানের দ্রুত আরোগ্যের জন্য মিলাদ এবং দো’আ আয়োজন করেছে। আমি জানতে পেরেছি তারা সবাই সাকিবের ভক্ত, যা আমাকে অবাক করে দিয়েছে। এই দো’আ ও মিলাদের আয়োজন দেশের ১০টি মসজিদে করা হয়েছে। পরম করুণাময় আল্লাহ তাকে (সাকিব) আপনাদের দোয়া ও ভালোবাসায় ভরিয়ে দিয়েছেন। আলহামদুলিল্লাহ্‌, সে খুব দ্রুত চোট থেকে সেরে উঠছে। মহাপরাক্রমশালী আল্লাহ্‌, আমাদের প্রতি দয়ালু হয়েছেন।’

IMG 20181012 224928
শিশিরের শেয়ার করা লেখাটি

উল্লেখ্য, চলতি বছরের শুরুর দিকে ত্রিদেশীয় সিরিজে এই চোট পেয়েছিলেন সাকিব। সেটি নতুন করে মাথা চাড়া দেয়। সেই চোট নিয়েই এবারের এশিয়া কাপে খেলতে গিয়েছিলেন এই বাঁহাতি অলরাউন্ডার। অস্ত্রোপচার প্রয়োজন হলেও এশিয়া কাপের গুরুত্বের কথা ভেবে তা পিছিয়ে দিয়েছিলেন।

কিন্তু সুপার ফোরে পাকিস্তান ম্যাচের আগের দিন আঙুলের অবস্থার এতটাই অবনতি হয় যে, দেশে ফিরে আসতে হয় সাকিবকে। দেশে ফিরে অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা ছিল তার। কিন্তু আঙুল অস্বাভাবিক ফুলে উঠায় রাজধানীর একটি হসপাতালে ভর্তি হতে হয় তাৎক্ষনিক।

চিকিৎসকরা জানান সাকিবের আঙুলে পুঁজ জমে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। কয়েক দফায় পুঁজ বের করা হয়েছে সাকিবের। তবে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় অস্ত্রোপচার বিলম্বিত হচ্ছে। তবে অস্ত্রোপচার হলেও আঙুলটা আর স্বাভাবিক হবে না সাকিবের। জানিয়েছেন নরম হাড্ডি জোড়া লাগার তেমন কোন সম্ভাবনা নেয়। তবে সাকিবের চাওয়া অপারেশন করে তার আঙুলটাকে ডাক্তাররা এমন পরিস্থিতিতে এনে দিক যাতে তিনি ব্যাটটা অন্তত করতে পারেন।

সাকিব জানান, ‘আমার আঙুলটা আর কখনো হান্ড্রেড পার্সেন্ট ভালো হবে না! কারণ হাড্ডিটা যেইটা, নরম হাড্ডি জোড়া লাগার সম্ভাবনা নেয়। সো পুরোপুরি ঠিক হবে না তবে ওরা (ডাক্তার) এমন একটা পরিস্থিতিতে এনে দিবে যাতে আমি ব্যাটটা ভালোভাবে ধরতে পারবো, ক্রিকেট খেলাটা চালাতে পারবো।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

মাঠে হাতাহাতিতে জড়ানো কান্ডে এবার চুকাতে হলো মাশুল

Read Next

‘১৯৯৯’ সালে শ্রীনাথ, ‘২০১৮’ সালে উমেশ

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share