শান্তর ‘থাকা’ ও সৌম্যর ‘না থাকার’ কারণ ব্যাখ্যা নির্বাচকের

1539347318424

প্রশ্নটা জাগে স্বভাবতই, সবশেষ টুর্নামেন্ট অর্থাৎ এশিয়া কাপের পারফর্মও যদি হিসাবে আনা হয় তবুও তাতে দুজনের মধ্যে টিকে যান সৌম্য সরকার। শান্ত-সৌম দুজনেই ওপেনার। সাথে নাজমুল হোসেন শান্তর থেকে বোলিং গুনেও এগিয়ে থাকার কথা সৌম্য সরকারের। তাহলে কি বুঝে সৌম্যকে টপকে টিকে গেলেন শান্তই? এই থাকা, না থাকার কারণটা পরিষ্কার করেছেন দলের নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন নিজেই।

শান্ত-সৌম্য, সৌম্য-শান্ত বিষয়টা প্যাচ লাগার মতই বটে। আসন্ন জিম্বাবুয়ে সিরিজের জন্য গতকাল দল ঘোষণার পর থেকে সেটা নিয়ে কম জল ঘোলা হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। যদিও এইটা একটা নিয়মিত প্রক্রিয়া যে নির্বাচকরা কোন সিরিজের আগে দল দিবেন এর পরেই শুধু হয়ে যাবে পক্ষে-বিপক্ষে তর্ক।

এবারও তেমনটা হওয়ার কারণ আছে বৈকি। কেননা সবশেষ এশিয়া কাপে ৩ ম্যাচে ২০ রান করা নাজমুল হোসেন শান্ত টিকে গেলেও বাদ পড়তে হয়েছে ভারতের বিপক্ষে ফাইনালে দলের ব্যাটিং বিপর্যয়ে মূল্যবান ৩৩ রান করা সৌম্যকে।

Habibul basharB20160817114840
ফাইল ছবি

অথচ এশিয়া কাপে শান্তর বাজে ফর্মের কারণেই দলের এমন হাল হলো যে টিম ম্যানেজমেন্টের মাত্র ২৪ ঘণ্টার নোটিশে ইমরুল কায়েসের সঙ্গে সৌম্যকে উড়িয়ে নেওয়া হলো আরব আমিরাতে। সেখানে যেয়ে যে এই মিডিয়াম পেসের অলরাউন্ডার খুব বেশি সফল হয়েছেন তা বলার যো নেই একদমই। তবে কোনো ম্যাচে ব্যাটে তো কোনো ম্যাচে বোলিং দিয়ে নিজের উপর রাখা আস্থার প্রতিদান দিতে চেষ্টা করেছেন সৌম্য।

তাইতো স্বাভাবিকভাবে প্রশ্নটা এসে যাচ্ছে, ছন্দে নেই এ যুক্তিতে যদি সৌম্য বাদ হন, একই যুক্তি কি নাজমুলের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়? এই প্রসঙ্গে নির্বাচক হাবিবুল বাশর সুমন জানান, ‘এখানে কোন যুক্তি নেই, আমাদের ভবিষ্যতের খেলোয়াড় তৈরির কথা আগে ভাবতে হবে। তিনটা ম্যাচ দেখে যদি একজন খেলোয়াড়কে বাদ দিই তাহলে খেলোয়াড় তৈরির প্রক্রিয়াটা শেষ হবে না। ওকে (শান্ত) আরেকটা সুযোগ দেওয়া উচিত।’

images 35

তিনি আরো যোগ করেন, আজকের প্রতিষ্ঠিত খেলোয়াড় সাকিব-তামিম-মুশফিককেও এভাবে সুযোগ দেওয়া হয়েছে। ক্যারিয়ার শুরুতে এসেই সবাই ভালো খেলে না। একটা খেলোয়াড়ের পেছনে আমরা অনেক বিনিয়োগ করি, তাই না? জাতীয় লিগের গত পর্বেও সে সেঞ্চুরি (১৭৩) করেছে। গত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে রান করেছে। এইচপিতে রান করেছে। বয়সভিত্তিক ক্রিকেটে রান করেছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাকে তৈরি হতে আরেকটা সুযোগ দেওয়া দরকার ছিলো আমাদের।’

143217233043.3

তাহলে কেনইবা সৌম্যকে হঠাৎ এশিয়া কাপে নেওয়া হলো আবার মাত্র দুটি ম্যাচ দেখেই ছুড়ে ফেলা হলো। যদি পারফরম্যান্স মূল্যায়ন করেন তাহলে শান্তর থেকে নিশ্চয় খারাপ করেনি সৌম্য। এর উত্তরে বাশার বলেন, ‘সৌম্য অনেক দিন ধরে খেলেছে। খেলোয়াড় হিসেবে সে তৈরি কিন্তু ছন্দে নেই। সেখানে শান্তকে আমাদের তৈরি করতে হবে। শান্ত-রাব্বী (ফজলে) এ ধরনের খেলোয়াড়দের সময় দিয়ে তৈরি করতে হবে। সৌম্য ছন্দে ফিরলে আবার দলে চলে আসবে। ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে আমরা সবাই ভালো খেলোয়াড় চাই।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

‘এখানে ক্রিকেটের জয় হয়েছে’

Read Next

স্কোয়াডে ডাক না পাওয়া সৌম্যর এপিএল না খেলার কারণ

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share