পাঁচদিন পর আজ হাসপাতাল ছাড়লেন সাকিব

আল হাসান

সাকিব আল হাসানের শূন্যতা একটা সময় বাংলাদেশ দলে যেন কল্পনারও অতীত ছিলো, অথচ প্রার্থনাতে এখন কবে ফিরে পাওয়া যাবে বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডারকে! গতকালই জিম্বাবুয়ের সাথে আসন্ন সিরিজের জন্য দল ঘোষণা করেছে বিসিবি। সেখানে সাকিবের না থাকাটা অবধারিতই ছিলো। এই বাঁহাতি অলরাউন্ডারকে ছাড়া ভাবতে হবে আরো গোটা কয়েক মাস। তবে স্বস্তির খবর এই যে দ্রুতই সেরে উঠছেন তিনি। আজ ছেড়েছেন মেলবোর্নের হাসপাতাল।

দেশের ক্রিকেটে আস্থার এক নাম সাকিব আল হাসান। দেশের তো বটেই, দীর্ঘদিন ধরে বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডারও তিনি। তার ইনজুরিতে মাঠের বাইরে থাকাটা তাই খুব বেশি স্বস্তির ব্যাপার নয়। আর আঙুলের এই ইনজুরি নিয়ে জল কম ঘোলা হয়নি। একটু উনিশ-বিশ হলে পচন ধরতে পারতো আঙুলে, তা ছড়িয়ে পড়তে পারত হাতে। তবে স্বস্তির খবর পাওয়া গেছে মেলবোর্নে। সব রিপোর্টই এসেছে বেশ ভালো। তাইতো ৫ দিন পর আজ হাসপাতাল ছাড়লেন সাকিব।

আগেই কথা ছিল সব ঠিকঠাক থাকলে শুক্রবার (১২ অক্টোবর) হাসপাতাল ছাড়বেন সাকিব আল হাসান। পূর্বের পরিকল্পনা অনুযায়ীই হয়েছে সবকিছু, তাইতো বিদায় বলতে পারলেন হাসপাতালকে। কিন্তু সেখান থেকে বের হলেও এখনই দেশে ফিরছেন না সাকিব। আরও কিছুদিন মেলবোর্নে থাকবেন তিনি। সেখানে নিজের বন্ধুর বাসাতে থেকে আরও কয়েকদিন পর আঙুলের অবস্থা বুঝে দেশে আসার সিদ্ধান্ত নেবেন।

43350123 2221761494735647 7346935056121724928 n
ফাইল ছবি

উল্লেখ্য, চলতি বছরের শুরুর দিকে ত্রিদেশীয় সিরিজে এই চোট পেয়েছিলেন সাকিব। সেটি নতুন করে মাথা চাড়া দেয়। সেই চোট নিয়েই এবারের এশিয়া কাপে খেলতে গিয়েছিলেন এই বাঁহাতি অলরাউন্ডার। অস্ত্রোপচার প্রয়োজন হলেও এশিয়া কাপের গুরুত্বের কথা ভেবে তা পিছিয়ে দিয়েছিলেন।

কিন্তু সুপার ফোরে পাকিস্তান ম্যাচের আগের দিন আঙুলের অবস্থার এতটাই অবনতি হয় যে, দেশে ফিরে আসতে হয় সাকিবকে। দেশে ফিরে অবশ্য যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা ছিল তার। কিন্তু আঙুল অস্বাভাবিক ফুলে উঠায় রাজধানীর একটি হসপাতালে ভর্তি হতে হয় তাৎক্ষনিক।

shakib al hasan returns to bangladesh squad for t20i tri series1521108054

চিকিৎসকরা জানান সাকিবের আঙুলে পুঁজ জমে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। কয়েক দফায় পুঁজ বের করা হয়েছে সাকিবের। তবে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় অস্ত্রোপচার বিলম্বিত হচ্ছে। তবে অস্ত্রোপচার হলেও আঙুলটা আর স্বাভাবিক হবে না সাকিবের। জানিয়েছেন নরম হাড্ডি জোড়া লাগার তেমন কোন সম্ভাবনা নেয়। তবে সাকিবের চাওয়া অপারেশন করে তার আঙুলটাকে ডাক্তাররা এমন পরিস্থিতিতে এনে দিক যাতে তিনি ব্যাটটা অন্তত করতে পারেন।

সাকিব জানান, ‘আমার আঙুলটা আর কখনো হান্ড্রেড পার্সেন্ট ভালো হবে না! কারণ হাড্ডিটা যেইটা, নরম হাড্ডি জোড়া লাগার সম্ভাবনা নেয়। সো পুরোপুরি ঠিক হবে না তবে ওরা (ডাক্তার) এমন একটা পরিস্থিতিতে এনে দিবে যাতে আমি ব্যাটটা ভালোভাবে ধরতে পারবো, ক্রিকেট খেলাটা চালাতে পারবো।’

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

‘ডোন্ট কিল দ্য গেইম’, ‘সেভ কিনরারা ওভাল’

Read Next

‘এখানে ক্রিকেটের জয় হয়েছে’

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share