সমতাতে শেষ হলো ‘চার সেঞ্চুরির’ ম্যাচ

1539243314869

চার দিনের ম্যাচে মাঠে খেলা গড়িয়েছে তিন দিন। বৃষ্টি বাঁধাতে পণ্ড হয়েছে আজ অর্থাৎ চতুর্থ দিনের খেলা। তাইতো দিনের বাকি সময় বল আর মাঠে গড়ানোর মত অবস্থাতে না থাকাতেই ড্র ঘোষণা করা হয়েছে রাজশাহী বনাম রংপুরের ম্যাচকে। ম্যাচ সমতাতে শেষ হলেও আগের তিন দিনে দুইটা দলই নিজেদের ব্যাটিংয়ের আভিজাত্যটা জাহির করেছে ঠিকই। তিন শতকের সাথে এক দ্বিশতক অর্থাৎ মোট চারটা সেঞ্চুরি দেখে গেছে এই ম্যাচে।

এনসিএলের দ্বিতীয় রাউন্ডে টায়ার ওয়ানের ম্যাচে রাজশাহীর মুখোমুখি হয়েছিলো রংপুর বিভাগ। যেখানে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ফরহাদ রেজা ও মোহর শেখদের অনবদ্য বোলিংয়ে মাত্র ১৫১ রানেই গুটিয়ে গেছিলো রংপুর। পরে ব্যাট করতে নেমে নিজেদের আধিপত্যটা ধরে রেখেছিলো টায়ার টু থেকে টায়ার ওয়ানে উঠে আসা রাজশাহী বিভাগ। প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে দলের উদ্বোধনি ব্যাটসম্যান শান্ত ও মিজানুর শাসন করেছে রংপুরের বোলারদের।

ওপেনিং পার্টনারশিপে যেখানে এই দুই ব্যাটসম্যান তুলেছে ৩১১ রান। ১৬৫ রানে থাকা মিজানুর আউট হয়ে গেলে পরে তাকেও ছাড়িয়ে যান আরেক ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত। তিনি আউট হওয়ার আগে খেলে যান ১৭৩ রানের অনবদ্য এক ইনিংস। এরপর শতক হাঁকিয়েছেন তিনে ব্যাট করতে আসা জুনায়েদ সিদ্দিকীও। তার ১০০ রানে কোটা ছোঁয়ার পরেই ৪ উইকেটে ৫৮৯ রানের পাহাড়সম স্কোর তুলে ইনিংস ঘোষণা করে দেই রাজশাহী বিভাগ।

images 33
রাজশাহীর তিন সেঞ্চুরিয়ান শান্ত-জুনায়েদ-মিজানুর। ছবিঃ সংগৃহীত

৪৬৪ রানের বিশাল লিড মাথায় নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে রংপুর। দলের হয়ে ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে এসে যেন রাজশাহীর বোলারদের মূর্তিমান আতঙ্ক বনে যান লিটন দাস। ইনিংসের শুরু থেকেই খেলতে থাকেন ঝড়ো গতিতে ব্যাট চালিয়ে। ফালাফলও আসে হাতেনাতে। মাত্র ৮১ বল মোকাবেলা করে ১৬ চার ও ১ ছয়ে তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগারে পৌঁছান লিটন। তাইজুল ইসলামকে টানা দুই চার হাঁকিয়ে ব্যাট উঁচিয়ে ধরেন তিনি। এটি তাঁর প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারের ১৩ তম সেঞ্চুরি।

এদিন ওতেই অবশ্য তৃপ্ত থাকেননি এই ডানহাতি ব্যাটসম্যান, জ্বলেছেন আরো বেশি। নিজের শতকটাকে দ্বিশত বানাতে পরে খেলেছেন মাত্র ৫৯ বল। সেঞ্চুরির মতো ডাবলটাও পূর্ণ করেছেন প্রায় একইভাবে। ব্যক্তিগত ১৯৯ থেকে সেই তাইজুলকে চার হাঁকানোর পথে ছুঁয়ে ফেলেন এই মাইলফলক।

গত ২৬ এপ্রিল ২৭৪ রান করার পথে ১৯০ বলে পূর্ণ করেছিলেন ২০০। বাংলাদেশের কোন ব্যাটসম্যানের দ্রুততম ২০০ রান ছিল সেটাই। গতকাল সেই রেকর্ড ভঙলেন তিনি নিজেই। এবার বল কমলো আরো ৫০, ১৪০ বলেই পূর্ণ করেছেন ২০০।

Liton 220181010171501
২০৩ রানের ইনিংসটি খেলার পথে লিটন দাস

দুশো রানের কোটা পার করার পর অবশ্য এর ঠিক এক বল পরই আউট হয়ে যান লিটন। ১৪২ বলে ৩২টি চার ও ৪টি ছক্কায় ২০৩ রানের আলো ঝলমলে ইনিংস খেলেন জাতীয় দলের এই ওপেনার। তার বিদায়ে ভাঙে ২১৯ রানের দ্বিতীয় উইকেট জুটি।

লিটনের আউট হওয়ার পরে অবশ্য ম্যাচের তৃতীয় দিনে আর মাত্র দুটো বল মাঠে গড়িয়েছিলো। যেখানে দুই উইকেটে ৩১৯ রান নিয়ে দিনের খেলা শেষ করেছে রংপুর বিভাগ। ফলে ম্যাচের চতুর্থ ও শেষ দিনে আজ রাজশাহীর থেকে ১১৯ রানে পিছিয়ে, মাহমুদুল হাসান ৭২ ও দলীয় অধিনায়ক সাজেদুল হাসান ২ রানের অপরাজিত থেকে দিনের খেলা শুরু করার কথা থাকলেও হয়নি পরে। বৃষ্টি বাঁধাতে পণ্ড হয়ে গেছে ম্যাচ। ফলে ড্র’তেই তৃপ্ত থাকতে হয় দুই দলকেই।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ফ্র‍্যাঞ্চাইজি লিগের ব্যাপারে কঠোর হচ্ছে আইসিসি

Read Next

বাংলাদেশের হয়ে খেলার স্বপ্ন দেখেন বুলবুল পুত্র মাহদি

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share