‘৯৯’ রানে আউট হওয়ার পরের অনুভূতি ব্যক্ত মুশফিকের

Vinkmag ad

এশিয়া কাপের মহাগুরুত্বপূর্ণ অঘোষিত সেমিফাইনালে পাকিস্তানের সাথে ৩৭ রানে জিতে টুর্নামেন্টের ফাইনালে বাংলাদেশ দল। তবে ম্যাচের শেষটা যতটা সুন্দর হয়েছে, শুরুটা তেমন ছিলোনা মোটেও। শুরুতেই ধুকতে থাকা বাংলাদেশকে পথ পাইয়েছেন মুশফিকুর রহিম। তারই দরুন হাতে তুলেছেন ম্যাচসেরার পুরস্কার। তবুও আক্ষেপ থেকে যায় কিছুটা। কেননা আউট হয়ে যে ফিরেছেন সেঞ্চুরি থেকে মাত্র এক রান দূরে থেকে। এনিয়ে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন ম্যাচ শেষে।

প্রথম বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান হিসাবে ‘নার্ভাস ৯৯’ রানে আউট হলেন মুশফিকুর রহিম। এমন রেকর্ডটা অবশ্য স্বপ্নতেও কল্পনা করতে চাইবেন না কেউই। না চাইলেও হয়েছে তেমনটাই। ইনিংসের ৪২তম ওভারে শাহিন আফ্রিদির ইনসুইঙ্গারে উইকেটের পিছনে সরফরাজ আহমেদের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন মুশফিক। মাত্র একটি রানের জন্য হলো না সেঞ্চুরিটা। এ কষ্ট কি চাইলেই এত সহজে ভোলা যায়? তিনি নিশ্চয়ই আক্ষেপে পুড়ছেন ভীষণ!

তবে মুশফিক বলছেন তার এই কষ্টটা নেই একদমই। দারুণ উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচটা যে জিতেছে বাংলাদেশ, পাকিস্তানকে হারিয়ে উঠে গেছে এশিয়া কাপের ফাইনালে। আবু ধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে সেঞ্চুরি মিসের হতাশা প্রসঙ্গে মুশফিক বলেন, ‘সত্যি করে বলতে, জয়ের পর আমার আর খারাপ লাগছে না। আমি জানি না আপনারা জানেন কি না, আমি সবসময়ই বিশ্বাস করি দল সবার আগে। যদি আমি সেঞ্চুরি করতাম, আমরা ২৬০ করতাম, কিন্তু ম্যাচটা হেরে যেতাম! আমার কিন্তু তখন ভালো লাগতো না। এটা শুধু মুখে বলছি না, মন থেকেই বলছি।’

DoB6yG3XUAAGhgJ
‘নার্ভাস ৯৯’ রানের ফেরার পর মুশফিক

৯৯ রানে আউট হওয়ার পর মুশফিকের আক্ষেপ না হলেও আক্ষেপটা ঠিকই হয়েছে অন্যখানে। ইনিংসের শুরুতেই ১২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে যখন রীতিমত ধুঁকছে দল, তখনই মোহাম্মদ মিঠুনকে সঙ্গী করে লড়াই চালিয়ে যান এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যানের। চতুর্থ উইকেটে তারা গড়েন এশিয়া কাপে এই উইকেটে তৃতীয় সর্বোচ্চ ১৪৪ রানের জুটি। যে জুটিতে ভর করেই ঘুরে দাঁড়ায় বাংলাদেশ, পেয়ে যায় লড়াকু সংগ্রহ।

তবুও যেন খুশি নন মুশফিক। ৯৯ রানে দলের অমন মুহূর্তে আউট হওয়ার পরের অনুভূতির গল্প শোনাতে যেয়ে তিনি বলেন, ‘আমার হতাশাটা খুব বেশি ছিল। তবে সেইটা অন্য কারণে। আমি ড্রেসিংরুমে গিয়েও বলছিলাম, সেট ব্যাটসম্যান হিসেবে আমার কমপক্ষে ৪৮ ওভার পর্যন্ত খেলা দরকার ছিল। ডেথে তাদের যে বোলিং কোয়ালিটি, নতুন ব্যাটসম্যানের জন্য রান করা কঠিন। আমরা কোনোমতে শেষ ২০ ওভারে ১০০ করেছি। সম্ভবত ১১০-এর মতো করি। তাই এটা আমার জন্য ভীষণ হতাশাজনক ছিল। তবে আমি মনে করি, দলের জয়টাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।’

DoB7CQRWkAABayr
৯৯ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলার পথে মুশফিক

উল্লেখ্য, টানা দুবারের সাথে শেষ চারবারের মধ্যে তিনবারই এই এশিয়া কাপের ফাইনালেে উঠলো বাংলাদেশ দল। সেই ফাইনালেই আগামীকাল (২৮ সেপ্টেম্বর) ভারতের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ দল। খেলাটি শুরু বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৫ টায়।

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

সাকিবের ছিটকে পড়ার পর কি আলোচনা হয়েছিলো দলে?

Read Next

প্রেসবক্সে ওয়াকারের কথার তীর ফেরালেন আতহার

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share