নিয়ম ভেঙে শাস্তি পেলেন হাসান-আজগর-রাশিদ

featured photo1 22
Vinkmag ad

পাকিস্তানের পেসার হাসান আলি, আফগানিস্তানের অধিনায়ক আজগর আফগান ও আফগান লেগ স্পিনার রাশিদ খান আইসিসির কোড অফ কন্ডাক্ট ভাঙাতে তাঁদেরকে জরিমানা (ম্যাচ ফি’র ১৫ শতাংশ) করেছে আইসিসি। তাঁদের প্রত্যেকের কপালেই জুটেছে ১ টি করে ডিমেরিট পয়েন্ট।

মূলত আইসিসির কোড অফ কন্ডাক্টের লেভেল ১ ভঙ্গ করাতে শাস্তির আওতায় এসেছেন দুই ভিন্ন দলের তিন ক্রিকেটার। এশিয়া কাপে সুপার ফোরের ম্যাচে পাকিস্তান-আফগানিস্তানের লড়াইয়েই ভিন্ন ভিন্ন ঘটনায় কোড অফ কন্ডাক্ট ভাঙেন হাসান আলি, আজগর আফগান ও রাশিদ খান।

the Afghanistan captain brushed his shoulder with the bowler Hasan in the 37th over as he passed him while taking a run
এর আগেও ডিমেরিট পয়েন্ট পাবার অভ্যাস আছে আজগর আফগানের

হাসান আলি ও আজগর আফগান আইসিসির কোড অফ কন্ডাক্টের অনুচ্ছেদ নম্বর ২.১.১ ভেঙেছেন। যেটা হল- ‘এমন কোন আচরণ যা কিনা ক্রিকেটের স্পিরিটকে সমর্থন করেনা’। অন্যদিকে রাশিদ খান ভেঙেছেন কোড অফ কন্ডাক্টের অনুচ্ছেদ নম্বর ২.১.৭। যেটা হল- ‘আন্তর্জাতিক ম্যাচ চলাকালীন সময়ে এমন কোন ভাষা বা অঙ্গভঙির ব্যবহার যা কিনা আউট হওয়া ব্যাটসম্যানকে উত্তেজিত করে প্রত্যুত্তর দিতে বাধ্য করতে পারে’।

হাসান আলি ও রাশিদ খান এবারই প্রথম ডিমেরিট পয়েন্ট পেলেন। কিন্তু আজগর আফগান ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতেও ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছিলেন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচে আম্পায়ারের দেওয়া সিদ্ধান্তের প্রতি অসম্মান দেখানোর কারণে সেযাত্রায় ডিমেরিট পয়েন্ট পেয়েছিলেন আফগান দলপতি।

Hasan Ali
অহেতুক থ্রো করার ভয় দেখিয়ে বিপাকে পড়েন হাসান আলি

আফগানিস্তানের ইনিংসের ৩৩ তম ওভার করেছিলেন হাসান আলি। ব্যাট হাতে ছিলেন হাশমতউল্লাহ শাহিদি। ঐ ওভারের এক পর্যায়ে নিজের বলে নিজে ফিল্ডিং করা হাসান আলি হাশমতউল্লাহর দিকে থ্রো করার অহেতুক ভয় দেখান।

আজগর আফগান শাস্তি পেয়েছেন তার দলের ইনিংসের ৩৭ তম ওভারের ঘটনায়। এ যাত্রায়ও বোলার ছিলেন হাসান আলি। তবে সেখানে দোষ ছিল কেবল আজগর আফগানেরই। রান নেওয়ার সময় ইচ্ছে করেই হাসান আলির কাঁধে ধাক্কা দেন আজগর।

Rashid Khan
দারুণ বল করেও দলকে জেতাতে পারেননি, উল্টো গুনতে হচ্ছে জরিমানা

রান তাড়া করতে নামা পাকিস্তানের ইনিংসে তখন চলছিল ৪৭ তম ওভার। নতুন উইকেটে আসা আসিফ আলি রাশিদ খানের বলে ছক্কা হাঁকান। রাশিদ অবশ্য প্রতিশোধ নিতে সময় নেননি। ঐ ওভারেই আসিফ আলিকে আউট করেন রাশিদ। তবে বিপত্তির শুরু আউট হবার পরে। আসিফ আলিকে তাচ্ছিল্য করে আঙুল দিয়ে কয়েক দফা সাজঘরের পথ দেখিয়ে দেন রাশিদ। যা কিনা পছন্দ হয়নি আম্পায়ারদের।

ম্যাচ শেষে তিনজনের প্রত্যেকেই নিজেদের দোষ ম্যাচ রেফারির কাছে স্বীকার করলে শুনানির দরকার পড়েনি। তিন ক্রিকেটারের ওপর অভিযোগ এনেছিলেন অন ফিল্ড আম্পায়ার অনিল চৌধুরি ও শন জর্জ, তৃতীয় আম্পায়ার রড টাকার এবং চতুর্থ আম্পায়ার আনিসুর রহমান।

Shihab Ahsan Khan

Shihab Ahsan Khan, Editorial Writer- Cricket97

Read Previous

জানা সাকিবের জন্য পাতা হয়েছিল ফাঁদ

Read Next

দেশের ক্রিকেটে ফিরেই স্মিথ-ওয়ার্নারের ব্যাটে রান

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share