তামিমের সাহসিকতায় মুগ্ধ ম্যাথুস

tamim math
Vinkmag ad

তামিম ইকবাল আঘাত পেয়ে ফিরে যাওয়ায় ১১তম ব্যাটসম্যান হিসেবে কারও নামার সম্ভাবনা নেই। কিন্তু সাহসের অন্য নাম হয়ে সেই তামিম-ই যখন ব্যাটিং করতে ফিরলেন। আর তাতে অবাক ক্রিকেট বিশ্ব। তামিম মাঠে নামতেই যেন আ-গ্রা-সীরূপে আবির্ভূত হন মুশফিক। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে লঙ্কান অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস বললেন, ‘তামিমের এমন সাহসিকতায় মুগ্ধ আমি’।

tamim iqbal 20180916132736

ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই সুরাঙ্গা লাকমলের বাউন্সার পুল করতে গিয়ে হাতে চোট নিয়ে মাঠ ছাড়েন তামিম। পরে এক্স-রে রিপোর্টে তার বাম কবজিতে চিড় ধরা পড়ে। কমপক্ষে ছয় সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে তাকে। তার এশিয়া কাপও তাই শেষ। কিন্তু হাসপাতাল থেকে কবজিতে ব্যান্ডেজ বেঁধে আসা তামিম নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে মুস্তাফিজুর রহমান আউট হওয়ার পরেই সবাইকে চমকে দিয়ে নেমে গেলেন মুশফিককে সঙ্গ দিতে।

সঙ্গ পাওয়া মুশফিকও যেন আত্মবিশ্বাসে মারদা-ঙ্গা হলেন আরো। তামিম নেমে শুধু একটি বলই খেললেন। তা-ও এক হাতে। খুব খেয়াল করে দেখা গেল, বাঁ হাতের গ্লাভস কেটে বের করে রাখা আছে সব আঙুলই। ওই অবস্থায়ই ৪৭তম ওভারের শেষ বলটি এক হাতে সামলে দিলেন তামিম। পরের ওভার থেকেই যেন জেতার ছন্দটা ধরে দিতে শুরু করলেন মুশফিক। টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচ জিতে যে ছন্দ ধরার কথা গত বেশ কয়েক দিন ধরেই বলে আসছিল বাংলাদেশ শিবির। তামিম নামার পর ১৫ বল খেলে মুশফিক তিনটি করে ছক্কা আর বাউন্ডারিতে তুলে দিলেন আরো ৩২ রান। তাতে মুশফিকের ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ ইনিংস ১৪৪ পর্যন্ত যেমন পৌঁছল, তেমনি শ্রীলঙ্কার লক্ষ্য ২৩০ রানের না হয়ে হলো ২৬২ রানের।

তামিমকে নামতে দেখে লঙ্কানরা যেমন ভড়কে গেল, তেমনি বাংলাদেশ শিবির যেন বিশাল সংগ্রহে পেয়ে গেল প্রতিপক্ষকে দুমড়ে-মুচড়ে দেওয়ার আত্মবিশ্বাসও। তাতে রান তাড়ায় নামা অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের দলকে এমনভাবে চেপে ধরা হলো যে টপাটপ উইকেট পড়তে থাকল।

41764936 1212544435555259 5081833664296255488 n

শ্রীলঙ্কান অধিনায়ক ম্যাথুসও মানছেন, তামিমের মাঠে ফেরাতেই মোড় ঘুরে যায় ম্যাচের। ম্যাচ শেষে তাই বাংলাদেশি ওপেনারের এমন সাহসিকতায় মুগ্ধ লঙ্কান অধিনায়ক। তিনি বলেন,

‘তামিম অনেক সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছে এক হাতে ব্যাট করতে নেমে। এভাবে ব্যাট করা কখনই সহজ নয়। কৃতিত্ব বাংলাদেশকে দিতেই হয়। তারা আমাদের সব বিভাগেই পরাজিত করেছে।’

‘আমি আগেও বলেছি, তামিম অনেক সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছে। মুশফিকও খুবই ভাল ব্যাট করেছে, আমার তো মনে হয় সে দারুণ খেলেছে। শেষের দিকে মুশফিক ক্রিজে থাকা অবস্থায় তামিম নেমেছিল, যা তাদের ২০-৩০ রান যোগ করতে সাহায্য করেছে।’

97 Desk

Read Previous

প্রত্যাবর্তনের ম্যাচে ‘রেকর্ড গড়ে’ বসলেন মালিঙ্গা

Read Next

ব্র‍্যান্ড ক্রিকেট নিয়ে এগিয়ে চলেছে বাংলাদেশ

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share