বাংলাদেশ ক্রিকেট: গোছানো একটি দল হতে না পারা

featured photo1 77
Vinkmag ad

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২০ বছরেরও বেশি সময় পার করলেও বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে পীড়াদায়ক বিষয় হলো একটা নিয়মিত একাদশ গড়ে তুলতে না পারা। যার জন্য অন্তত ১৫ জন ক্রিকেটারকে নিয়মিত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিয়মিত চর্চায় রাখা প্রয়োজন।

কোন খেলোয়াড়ের প্রতিভা দেখলেই তাকে ঐ মুহূর্তে দলে নেবার চেয়ে যাদের মেধা ইতোমধ্যে প্রমাণিত সেসব খেলোয়াড়ের আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তাদের দুর্বলতা গুলোকে ঝালাই দিয়ে আরো যোগ্য করে তোলা আর নতুন মেধাবী খেলোয়াড়দেরকে প্রস্তুত করা উচিত পাইপলাইনের জন্য। বিশেষত টি২০ ক্রিকেটে যখন অনূর্ধ্ব ১৯ দলের ক্রিকেটার কে অভিষেক করিয়ে দেয়া হয় টেস্ট বা টি২০ এর আগেই তখন তাদের কাছে কি টিম ম্যানেজমেন্ট চার ছক্কার ফুলঝুড়ি প্রত্যাশা করে কিনা তা তারাই ভাল জানেন।

264164

গত তিন চার বছরের পরিসংখ্যান দেখলে শুধু পেসার হিসেবে যাদের খেলানো হয়েছে বিভিন্ন ফরম্যাটে তাদের একটু দেখা যাক- মাশরাফি বিন মর্তুজা, রুবেল হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান, আল আমিন হোসেন, তাসকিন আহমেদ, মোহাম্মদ শহীদ, শুভাশিষ রয়, কামরুল ইসলাম রাব্বি, সাইফুদ্দিন, আবুল হাসান রাজু, রবিউল ইসলাম, শফিউল ইসলাম!

পেসারদের দিয়েই একটা একাদশ হয়ে গেছে! অথচ যাদের যেখানে ঘাটতি তাদের টেকনিক্যালি কাজ করলে তাদেরকে আরো পরিণত করা যেত। যেমন খেলা দেখেই মনে হয় তাসকিনের স্লোয়ার, লাইন লেন্থ, রব্বির ইয়র্কার, সাইফুদ্দিনের স্পিড, লাইন লেন্থ সহ আরো সবারই এরকম জায়গা আছে উন্নতি করার। এতে ৫/৭ টা ম্যাচ হারলেও কেউ নিয়মিত আন্তর্জাতিক খেললে সে ভালো সার্ভিস দেয়, ১.৫ বছরের মত অফ ফর্মে থেকেও তামিম সে সুযোগটা পেয়েছিল।

প্রত্যেকটা দেশের জন্য ট্রা ম্পকার্ড লেগ স্পিনার, আমরা জুবায়ের লিখন কে দিয়ে হয়তো সে অভাবটা পূরণ করতে পারতাম, শুধু তার অ্যাকুরেসি তে কিছুটা ঘাটতি ছিল। এখনও তাকে নিয়ে কাজ করলে বাংলাদেশ দলকে তার ভাল কিছু দেয়ার সম্ভাবনা আছে। নতুন খেলোয়াড়কে অভিষেক করিয়ে তাকে দু একটা ম্যাচ খেলিয়ে চিরতরে ভুলে যাবার কথা বাংলাদেশে নতুন নয়।

Capture 54

এখন তামিম, সাকিব, রিয়াদ, মুশফিক আর ওয়ানডেতে মাশরাফি এই পাঁচটা জায়গায় হাত দিতে হয়না জন্যই বাংলাদেশ দল তাও এ ব্যাপারে কিছুটা স্বস্তিতে থাকতে পারে, তবে এদের রিপ্লেসমেন্ট খোঁজার ব্যাপারে সচেতন হওয়া উচিত তবে তা এমন অপরিপক্ব ভাবে নয়। তাদের শুধু প্রতিভা আছে জন্য নয়, প্রতিভাকে ঝালাই করে আনা উচিত। ওয়ানডেতে যাও আমাদের একটা নিয়মিত একাদশ আছে, কিন্তু টেস্ট বা টি২০ তে যে কারা খেলবে তা আমরা নিশ্চিত থাকতে পারিনা।

মতামতে: সৌমিক কুন্ডু।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

মে মাসেই দেখা যাবে হেড কোচকে!

Read Next

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় বললেন বোরেন

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share