মোহামেডান-দোলেশ্বর ম্যাচ টাই, লিটনের সেঞ্চুরি

match port
Vinkmag ad

ডিপিএলের (ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ) এবারের আসরে ৭ম রাউন্ডে এসে মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে হারাবার সুযোগ হারাল প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ম্যাচ টাই হয়েছে। লিগে নিজের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি করেন দোলেশ্বরের লিটন কুমার দাস, ৬ উইকেট শিকার করেন মোহামেডানের মোহাম্মদ আজিম। ম্যাচ টাই হলেও পয়েন্ট তালিকার দুইয়ে উঠে আসলো প্রাইম দোলেশ্বর।

ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলি স্টেডিয়ামে টসে জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন মোহামেডান দলপতি শামসুর রহমান শুভ। তবে দলের রান ১০০ ছোঁয়ার আগেই সাজঘরের পথ ধরেন রনি তালুকদার (১৩), আমিনুল ইসলাম (৯), জনি তালুকদার (৩৭) ও ইরফান শুক্কুর (৬)। সেখান থেকে দলকে দারুণভাবে টেনে তোলে শুভ-রকিবুল জুটি। দুজন মিলে স্কোরবোর্ডে জমা করেন ১০৮ রান। শামসুর রহমানের ব্যাটে আসে দলীয় সর্বোচ্চ ৭৫ রান, রকিবুল হাসান আউট হন ৭২ রান করে।

শেষদিকে ভারতীয় রিক্রুট বিপুল শর্মা ৩১ বলে ৩ টি করে চার ও ছয়ে ৫৩ রান করলে বড় পুঁজি পায় মোহামেডান। ৫০ ওভার শেষ হবার এক বল আগে মোহামেডানের ইনিংস থামে ২৮৬ তে। প্রাইম দোলেশ্বরের হয়ে অধিনায়ক ফরহাদ রেজা সর্বোচ্চ ৩ উইকেট পান। এছাড়া মামুন হোসেন ২ টি এবং আরাফাত সানি ও মোহাম্মদ আরাফাত ১ টি করে উইকেট পান।

২৮৭ রানের বড় লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নেমে শুরুটা ভাল হয়নি প্রাইম দোলেশ্বরের। ১০ রান করে সাজঘরে ফেরেন ওপেনার ইমতিয়াজ হোসেন তান্না। তিনে নামা ফজলে মাহমুদও ১২ রানের বেশি করতে পারেননি। ব্যতিক্রম ছিলেন লিটন দাস। ৩য় উইকেট জুটিতে মার্শাল আইয়ুবকে নিয়ে লিটন যোগ করেন ৬৩ রান। মার্শাল আউট হন ২২ রান করে।

34720 122

শুরুতে ধীর গতিতে রান তোলা দোলেশ্বরের দরকার ছিল দ্রুত রান তোলার। সেই কাজটি স্বাচ্ছন্দে করেন লিটন দাস ও ফরহাদ হোসেন। দলীয় ২২৮ রানের মাথায় ফরহাদ হোসেন (৫২ বলে ৫২) আউট হলে ভাঙে লিটন-ফরহাদের ১২৪ রানের জুটি। একই ওভারে আউট হন লিটনও। তবে আউট হবার আগে কাজের কাজটি ঠিকই করে যান লিটন। ১২২ বলে ৮ টি চার ও ২ টি ছয়ে করেন ১২৯ রান। এর আগে কলাবাগানের বিপক্ষে অপরাজিত ১৪৩ রান করে দোলেশ্বরকে জিতিয়েছিলেন লিটন দাস। আজ করলেন এবারের লিগে নিজের দ্বিতীয় ও লিস্ট-এ ক্যারিয়ারের ৬ষ্ঠ সেঞ্চুরি। যদিও এদিন জয়ের মুখ দেখেনি তার দল।

19554748 1535208529879633 3598923518199121132 n
মোহাম্মদ আজিম

লিটন-ফরহাদের দারুণ ব্যাটিংয়ের পরেও জয়ের পথ সহজ ছিলনা দোলেশ্বরের জন্য। ফরহাদ রেজার ১০ বলে ১৮ ও জোয়াহেব খানের ১৯ বলে ২৪ রানের ইনিংসে যখন দোলেশ্বরের জয় প্রায় নিশ্চিত তখন কাজী অনিক ও মোহাম্মদ আজিম টানা ৩ উইকেট নিয়ে জমিয়ে দেন খেলা। তাতে অবশ্য জেতেনি মোহামেডান, হারেওনি যদিও। ৬ উইকেট নেন আজিম, ৩ উইকেট অনিক। ম্যাচসেরা হন মোহাম্মদ আজিম।

৭ ম্যাচে ৯ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার দুইয়ে প্রাইম দোলেশ্বর। সমান ৭ ম্যাচ খেলে ৭ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচ নম্বরে মোহামেডান।

Shihab Ahsan Khan

Shihab Ahsan Khan, Editorial Writer- Cricket97

Read Previous

ম্যানেজার হয়ে শ্রীলঙ্কায় যেতে চান না সুজন

Read Next

অলরাউন্ডার মাশরাফির দিনে আবাহনীর প্রথম হার

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share