রানবন্যার ম্যাচে রেকর্ড গড়ে অস্ট্রেলিয়ার জয়

match report 21
Vinkmag ad

গতকালই নিজেদের টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ইতিহাসে দলীয় সর্বোচ্চ ১৯৩ রান তুলেও লঙ্কানদের রেকর্ড চেজের শিকার হয়ে ম্যাচ হেরেছিল টাইগাররা। আজ দ্বিতীয়বারের মত নিউজিল্যান্ড ২৪৩ রানের সংগ্রহ পেলেও অস্ট্রলিয়ার সাথে পেরে উঠেনি ওরা। কিউইরা আগের ম্যাচটা উইন্ডিজের সাথে জিতলেও আজ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ইতিহাসে সব থেকে বড় রান তাড়া করে জেতার রেকর্ড গড়ে ম্যাচটা নিজেদের করে নিলো অজিরা।

এর আগে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করে সর্বোচ্চ সংগ্রহ ছিল ভারতের। উইন্ডিজের ২৪৫ রান তাড়া করে ২৪৪ তুলতে পেরেছিল ভারত। সেদিন ভারতীদের ১ রানের আক্ষেপে পুড়তে হলেও আজ ঠিকই রেকর্ড গড়ে ম্যাচ জিতে নিলো সফরকারী অস্ট্রেলিয়া। ট্রান্স-তাসমান সিরিজের ৫ নাম্বার ম্যাচে আজ তাসমান সাগরের পাড়ে আগেই টুর্নামেন্টের ফাইনাল নিশ্চিত করা অস্ট্রেলিয়ার মুখোমুখি হয় স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড।

273253

অকল্যান্ডের ইডেন পার্ক স্টেডিয়ামে টসে জিতে শুরুতেই আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। কেনের নেওয়া সিদ্ধান্তকে সম্মান জানাতেই যেন এদিন ইনিংসের শুরু থেকেই অজি বোলাদের উপর টর্নেডো বওয়াতে থাকেন দুই উদ্বোধনি ব্যাটসম্যান গাপটিল ও মুনরো, পাওয়ার-প্লের ৬ ওভারেই দু’ব্যাটসম্যান মিলে তোলেন ৬৭ রান।

এরপর মাত্র ৬৪ বলে ১৩২ রানের পার্টনারশিপ গড়ে ব্যক্তিগত ৭৬ রানে মুনরো আউট হয়ে গেলেও থামানো যায়নি গাপটিলের ব্যাট। মুনরো না পারলেও এদিন এই ফরম্যাটে নিজের দ্বিতীয় শতকটা তুলে নেন গাপটিল। অ্যান্ড্রু টাইয়ের দ্বিতীয় শিকার হয়ে ফেরার আগে খেলেন মাত্র ৫৪ বলে ১০৫ রানের ধ্বংসাত্মক এক ইনিংস। এরপর চ্যাম্পম্যান-টেইলরের ব্যাটে নির্ধারিত ওভার শেষে ২৪৩ রানের সংগ্রহ পায় নিউজিল্যান্ড।

DWJV7aqUMAALjCM

২৪৪ রানে পাহাড়সম টার্গেট তাড়া করতে মেনে এদিন কিউইদের থেকেও বেশি আগ্রাসী ছিল সফরকারীরা। পাওয়ার-প্লেতে স্বাগতিকদের ৬৭ রানে বিপরীতে সফরকারীরা তোলে ৯১ রান! অজিদের দুই ওপেনার ডর্চি শর্ট ও অধিনায়ক ওয়ার্নার মিলে এদিন লণ্ডভণ্ড করে ছেড়েছেন নিউজিল্যান্ডের বোলিং লাইন-আপ। পরে মাত্র ২০ বলে অর্ধশতক তোলা ওয়ার্নার ৫৯ রানে থামলে ভাঙ্গে ১২১ রানের উদ্বোধনি জুটি।

273256

অধিনায়কের আউটের পর লিন (১৮) ও ম্যাক্সওয়েল (৩১) বিদায় নিলেও ফিঞ্চকে সাথে নিয়ে ভালোই সামাল দিচ্ছিলেন শর্ট। এরপর জয় থেকে মাত্র ২৭ রান দূরে থাকতে শর্ট ৭৬ রানে প্যাভিলিয়নের পথ ধরলেও পরে মার্কাস স্টয়নিস ও অ্যালেক্স ক্যারিকে নিয়ে বাকি কাজ সারেন ফিঞ্চ। ফলে ৭ বল ও ৫ উইকেট হাতে রেখেই এই রেকর্ড গড়া জয় তুলে নেয় অস্ট্রেলিয়া।

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

নিউজিল্যান্ডঃ ২৪৩/৬ (২০ ওভার) মার্টিন গাপটিল ১০৫, কলিন মুনরো ৭৬, রোস টেইলর ১৭, কেন রিচার্ডসন ২/৪০, অ্যান্ড্রু টাই ২/৬৪, অ্যাস্টন অ্যাগার ১/২৪

অস্ট্রেলিয়াঃ ২৪৫/৫ (১৮.৫ ওভার) ডার্চি শর্ট ৭৬, ওয়ার্নার ৫৯, ফিঞ্চ ৩৬*, সোধি ১/৩৫, বোল্ট ১/৪২, সাউদি ১/৪৮

ফলাফলঃ অস্ট্রেলিয়া ৫ উইকেটে জয়ী

ম্যাচসেরাঃ ডার্চি শর্ট (অস্ট্রেলিয়া)

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

‘আমাদের দলেও ইনজুরি আছে’

Read Next

শেষ টি-টোয়েন্টিতেও নেই সাকিব

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share