ডট বলের সংখ্যা কমাতে চায় রিয়াদরা

featured photo1 23
Vinkmag ad

ক’দিন আগেই কেপটাউনে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার সাথে ১৬০ রানের ঝলমলে এক ইনিংস খেলেছেন ভারতীয় কাপ্তান ভিরাট কোহলি। যার মধ্যে পায়ে হেটেই নিয়েছেন পাক্কা একশো রান। খেলেছেন স্ট্রাইক রোটেট করে। বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট একদম উল্টোটা! রঙ্গিন পোশাক গায়ে চাপালেই যেন খেই হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। শর্টার ভার্সনে সব থেকে বড় দুশ্চিন্তার নাম ডট বল। টি-টোয়েন্টিতে সাফল্য আনতে এবার এই হার কমাতে চায় বাংলাদেশ।

ওয়ানডে হোক কিংবা টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট। সীমিত ওভারের খেলা মানেই বাংলাদেশের বড় এক চিন্তার নাম ডট বল। টাইগার ব্যাটসম্যানরা বাউন্ডারি মারতে যত স্বচ্ছন্দবোধ করেন, সিঙ্গেল-ডাবল নিয়ে খেলতে যেন ঠিক ততটাই অনীহা। বাউন্ডারিতে রানের চাকা সচল হওয়ার পরই ডট বলে আবার কমে যায় রানের গতি। পরিসংখ্যান বলছে গেল বছর বাংলাদেশ সাতটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছে। যার মধ্যে জিতেছে মাত্র একটিতে। এই সাত ম্যাচের পাঁচটিতেই ৪০ এর বেশি করে ডট বল খেলেছে ব্যাটসম্যানরা। আর একটিতেতো এই সংখ্যা ছাড়িয়েছে অর্ধশতকেরো বেশি।

f754506
সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

এই ডট বলের কারণেই যে দল অনেকটা ব্যকফুটে চলে যায় বাংলাদেশ দলের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ মানছেন সেটিও। জানালেন ডট বলের এই হার টি-টোয়েন্টি ম্যাচে রাখে বড় প্রভাব। এদিন শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে রিয়াদ জানান, ‘এটা সত্যি যে টি-টোয়েন্টিতে ডট বলের হার অনেক বেশি প্রভাব ফেলে। ডট বলগুলো যদি সিঙ্গেল বা স্ট্রাইক রোটেটে মনোযোগ দিতে পারি আমরা তাহলে মনেহয় অনেক ভালো কিছু হবে।’

ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত এই ফরম্যাটে সফল দলগুলার পরিসংখ্যান ঘেঁটে টাইগার দলপতি এই সংকট কাটিয়ে উঠার কথা জানিয়ে বলেন, ‘টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে সফল দলের পরিসংখ্যান যদি দেখেন তাহলে যাদের কম ডট থাকে তাদের সফলতার হারটাও অনেক বেশি থাকে। অবশ্যয় এটা তাই খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমরা যেইটা কাটিয়ে উঠার চেষ্টা করছি।’

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

প্রথম ম্যাচে পাওয়া যাচ্ছে না তামিম-মুশফিককে!

Read Next

ঢাকা টেস্টের পিচ ‘বিলো এভারেজ’

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share