‘ফাইনাল ম্যাচে জেতার জন্য আমরা উদগ্রীব হয়ে আছি’

featured photo1 59

এর আগে ২০০৯ সালে জিম্বাবুয়ে ও শ্রীলঙ্কার সাথে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে খেলেছিল বাংলাদেশ। ২০১২ সালের এশিয়া কাপ ও সবশেষ ২০১৬ সালের এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টির ফাইনালেও ছিল বাংলাদেশ। একবারো ফাইনাল জিতে উদযাপনে মাতা হয়নি মাশরাফিদের। তবে এবার ট্রফি জিততে মরিয়া টাইগার দলপতি। 

আজ সংবাদ সম্মেলনে তিন ফাইনালেই খেলা মাশরাফি বলেন,  “এটা আসলে প্রত্যেকের জন্যই নতুন সুযোগ। আমি হয়ত তিনটা ফাইনালে ছিলাম, মুশফিক ছিল, সাকিব ছিল, তামিমও ছিল হয়তো। এটা আমাদের জন্য নতুন আরেকটা সুযোগ। কালকে সম্পূর্ণ নতুন একটা ম্যাচ। আগের ম্যাচগুলো নিয়ে ভাবার দরকার মনে করছি না।”

IMG 9790
ছবিঃ ক্রিকেট৯৭

মাশরাফি যোগ করেন, “হারজিত তো থাকবেই, একদল জিতবে আর একদল হারবে। এটা নিয়ে না ভেবে আমার মনে হয় ইতিবাচক ক্রিকেট খেলা দরকার। প্রথম তিনটা ম্যাচ যেভাবে খেলেছি, সেই মানসিকতা যেন থাকে। গত কাল হয়ত যেটা প্রত্যাশা ছিল, সেটা মাঠে দেখাতে করতে পারিনি। ওটা আবার না হলেই হয়।”

এবার আর হতাশার সাগরে নিমজ্জিত হতে চান না মাশরাফি। তিনি বলেন, “ফাইনাল ম্যাচে জেতার জন্য আমরা উদগ্রীব হয়ে আছি। এটা সত্যি কথা। প্রথমবারের মতো হবে (চ্যাম্পিয়ন), যদি হতে পারি। তবে এটা হওয়ার আগ পর্যন্ত বেশি চিন্তা করলে চাপ এসে দাঁড়ায়। ফাইনাল ম্যাচে চাপ থাকেই। গতকাল জিতলেও থাকত। কাজেই একটা চাপ থাকে, ওটা থাকবেই। যারা চাপ সামলাতে পারবে, তারাই এগিয়ে থাকবে।

দলের অপেক্ষাকৃত তরুণদের এই ট্রফি জিতে জয়ের ক্ষুধা বাড়িয়ে দিতে চান অধিনায়ক।  “আমার কাছে মনে হয়, যদি জিততে পারি তবে এটার প্রভাব ভালো হবে। এখন যারা ড্রেসিংরুমে আছে, যারা জুনিয়র ক্রিকেটার, তারা বুঝতে পারবে এরকম একটা জয়ের স্বাদ কেমন, এরকম ম্যাচ জিতলে কেমন লাগে, এটা বুঝবে। তখন তাদের মধ্যে ওই চাওয়াটা, বা জয়ের ক্ষুধাটা তৈরি হতে পারে।”

তিনি আরো বলেন, “সিনিয়রদের কথা যদি বলি, আমাদের জন্যও এটা একটা দারুণ সুযোগ। আমার মনে হয় যে এরকম টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন হওয়াটা যে কোনো দলের জন্য বেশ গুরুত্বপূর্ণ একটা ব্যাপার।”

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

প্রস্তুত বলেই দলে নাইম, সুযোগ আছে রাজ্জাক, তুষারদের

Read Next

আইপিএলে দল পেলেন সাকিব

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share