প্রস্তুত বলেই দলে নাইম, সুযোগ আছে রাজ্জাক, তুষারদের

১৭ বছর ৫৫ দিন বয়সী নাইম হাসানকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট দলে দেখে অবাক অনেকেই। অনেকেরই মত, আরেকটু প্রস্তুত হবার পর পেতে পারতেন এমন সুযোগ। তবে যাদের হাতে কলকাঠি তারা ভাবছেন প্রস্তুত নাইম হাসান। আবার ঘরোয়া লিগে পারফর্ম করা রাজ্জাক-তুষারদের জন্যেও আশার বাণী শুনিয়েছেন প্রধান নির্বাচক। 

নাইম হাসানকে দলে রাখার ব্যাখ্যায় মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেন, “ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মেহেদী হাসান মিরাজকে আমরা এভাবেই অভিষেক করিয়েছিলাম। মিরাজও কিন্তু তখন অনভিজ্ঞ ছিল। অনূর্ধ্ব-১৯ থেকে এইচপিতে ছিল। নাইম হাসানও অনূর্ধ্ব-১৯ দলে আছে, গত ইমার্জিং কাপেও ছিল। তার ধারাবাহিক ভালো বোলিং করার ক্ষমতা আছে। অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপেও সে ভালো বোলিং করেছে। আর আমাদের একজন অতিরিক্ত স্পিনার রাখার চিন্তা ছিল। সেই হিসেবেই তাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।”

bd press

নাইমের প্রতিভা নিয়ে সন্দেহ নেই নির্বাচকদের। নান্নু বলেন, “নাইম আমাদের প্রোগ্রামের মধ্যেই আছে। বাড়তি একজন স্পিনার চেয়েছিলাম আমরা। ওর মধ্যে যে কোয়ালিটি আছে, আমরা মনে করি দেশের হয়ে ভালো করার সামর্থ্য ওর আছে।”

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ১০০০০ রান করা তুষার ইমরান কিংবা ৫০০ উইকেট পাওয়া আব্দুর রাজ্জাকদের জন্যেও খোলা জাতীয় দলের দরজা। তবে তার আগে ‘এ’ দলের হয়ে পারফর্ম করতে হবে। নান্নু বলেন, “ঘরোয়া ক্রিকেটে রাজ্জাকের মতো যারা পারফর্ম করে আসছে, ভবিষ্যতে তাদের সুযোগ অবশ্যই থাকবে। যারা পারফরম্যান্স করছে, তাদের জন্য একটা মঞ্চ, ‘এ’ দল আছে। জাতীয় দলে যাওয়ার আগে তো তাদের একটা মঞ্চ দিতে হবে। সেই হিসেবে আমাদের মাথায় আছে। সামনে দেখা যাক।”

তবে মাশরাফির সুরে সুর মিলিয়ে নান্নু বলেন, “কিছু কিছু ক্ষেত্রে আপনি দেখবেন যে, ঘরোয়া ক্রিকেটের সাথে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অনেক ব্যবধান আছে। শুধু ঘরোয়া ক্রিকেটে পারফর্ম করে কিন্তু জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া কঠিন। আপনি দেখবেন বিসিএলের গত রাউন্ডে একটা ভেন্যুতে সাতটা সেঞ্চুরি হয়েছে। উইকেটের কন্ডিশনও কিন্তু দেখতে হবে।”

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

বাংলাদেশের টেস্ট দলে চমক

Read Next

‘ফাইনাল ম্যাচে জেতার জন্য আমরা উদগ্রীব হয়ে আছি’

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share