ত্রিদেশীয় সিরিজে বাংলাদেশের টানা তিন, তামিমের প্রথম

matcort

সাকিব আল হাসান বোধহয় পণ করেই রেখেছিলেন ত্রিদেশীয় সিরিজের সবকটি ম্যাচে ম্যাচসেরা নিজেই হবেন, অন্যদিকে প্রথম দুই ম্যাচে রান করেও বল হাতে হাত না ঘুরানোর আক্ষেপ করেছেন তামিম ইকবাল। তবে আজ আর আক্ষেপে পুড়তে হয়নি তামিমের।  

আজ মিরপুরে জিম্বাবুয়েকে ৯১ রানে হারানো ম্যাচে ব্যাট হাতে ৫১ রানের পাশাপাশি বলহাতে ৩ উইকেট নিয়ে সাকিব আল হাসান ম্যাচসেরা হননি, বরং জোড়া মাইলফলক স্পর্শ করে ম্যাচসেরা তামিম ইকবাল।

27144733 1957944847803305 135584194 o
ছবিঃ বিডিক্রিকটাইম

১৪ রানের মাথায় হ্যামিল্টন মাসাকাদজাকে সাব্বির রহমানের ক্যাচ বানিয়ে মাশরাফির শিকার শুরু, ২০ রানের মাথায় নিজের চতুর্থ ওভারের শেষ দুই বলে দুই উইকেট তুলে নিয়ে জিম্বাবুয়েকে এলোমেলো করে দেন সাকিব আল হাসান, ১৪ রান পরই বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফির বলে সাব্বিরের হাতে ক্যাচ দিয়ে আরভিন ফিরে গেলে ৩৪ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে বসে জিম্বাবুয়ে।

BOWLER
দারুণ বল করেছেন সানজামুল

দলের এমন বিপর্যয়ে সিকান্দার রাজা- মুর ৩৪ রানের জুটি গড়ে কিছুটা চেষ্টা চালালেও সানজামুলের করা ২৩ তম ওভারের তৃতীয় বলে মুর এলবিডব্লিও হয়ে ফিরে ভাঙ্গে জুটি, পরের বলেই নতুন ব্যাটসম্যান ওয়ালারও আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরলে জাগে হ্যাট্রিকের সম্ভাবনা। ৬৮ রানে জিম্বাবুয়ের নেই ৬ উইকেট, ম্যাচ থেকে তখনই ছিটকে গেছে পুরোপুরি। প্রথম ৬ উইকেটে মুস্তাফিজের কোন ভাগ না থাকলেও নিজের করা প্রথম ২৪ বলে দেওয়া ২৩ ডটবলই প্রমাণ করে কতটা নাস্তানাবুদ করেছেন মুস্তাফিজ।

DUOhPG9VoAEjGKc
দারুণ বল করা মুস্তাফিজ পেয়েছেন ২ উইকেট

একদিকে মুস্তাফিজের কাটার বিষ অন্যদিকে সাকিব-মাশরাফি-সানজামুলদের উইকেট তুলে নেওয়া আর ম্যাচে ফেরাতে পারেনি জিম্বাবুইয়ানদের। শেষদিকে রুবেল-মুস্তাফিজের উইকেট ভাগাভাগি তে ১২৫ রানে থামে জিম্বাবুয়ের। জিম্বাবুয়ের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ৩৯ রান আসে সিকান্দার রাজার ব্যাট থেকে। বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান তিনটি, মাশরাফি, সানজামুল, মুস্তাফিজ দুটি করে ও রুবেল হোসেন একটি উইকেট নেন।

এর আগে টসে জিতে আগে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন টাইগার দলপতি মাশরাফি বিন মর্তুজা। ৩য় ওভারের প্রথম বলে ১ রান করে আউট হন এনামুল হক বিজয়। জার্ভিসের ভেতরে ঢোকা বল বিজয়ের ব্যাট মিস করে আঘাত হানে প্যাডে। আর তাতেই দীর্ঘদিন পর দলে ফেরা বিজয়ের মৃত্যঘন্টা বাজে।

শুরুতেই উইকেট হারিয়ে ফেলা বাংলাদেশের ইনিংস সঠিক পথে নিয়ে যান তামিম ইকবাল ও সাকিব আল হাসান। দুজন মিলে স্কোরবোর্ডে যোগ করেন ১০৬ রান। নিজের ৩৭ তম ওয়ানডে ফিফটি পূর্ণ করে সিকান্দার রাজার বলে স্ট্যাম্পিংয়ের শিকার হয়ে ফেরেন সাকিব আল হাসান (৫১)।

272398
১০৬ রান করে থেমেছে তামিম-সাকিব জুটি

তৃতীয় উইকেট জুটিতে মুশফিকুর রহিমকে নিয়ে ৩৫ রান যোগ করেন তামিম ইকবাল। ক্রেমারের প্রথম শিকার হয়ে ১৮ রান করে ফেরেন মুশফিকুর রহিম, সহজ ক্যাচ দিয়েছিলেন ব্লেসিং মুজারাবানিকে। বাংলাদেশের ব্যাটিং বিপর্যয়ের শুরু তখন থেকেই। মুশফিককে সাজঘরে সঙ্গ দিতে ১৫৬ রানের মাথায় চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (২)।

ত্রিদেশীয় সিরিজে আরো একবার তিন অঙ্কের রান না করতে পারার আক্ষেপ নিয়ে আজ ৭৬ রান করে আউট হন তামিম ইকবাল। যদিও ৭৬ রান করার পথে স্পর্শ করেছেন দুটি মাইলফলক। কোন নির্দিষ্ট ভেন্যুতে সর্বোচ্চ রানের মালিক এখন তামিম ইকবাল, ছাড়িয়েছেন সনাথ জয়সুরিয়াকে। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ৬০০০ রানের গন্ডিও পার করেছেন এদিন।

তামিম সাজঘরে ফেরার পর ৭ রানের ব্যবধানে আউট হন সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন ও অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। ১৪৭/২ থেকে দেখতে দেখতে বাংলাদেশ হয়ে যায় ১৭০/৮! ৯ম উইকেটে মুস্তাফিজকে সাথে নিয়ে ওয়ানডেতে প্রথমবার ব্যাট করতে নামা সানজামুল ইসলাম যোগ করেন ২৬ রান। ১৯ রান করে আউট হন সানজামুল। মুস্তাফিজের ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে (১৮*) ২০০ পার করে বাংলাদেশ। ৪ বলে ১ ছয়ে ৮ রান করে অপরাজিত থাকেন রুবেল হোসেন ।

বাংলাদেশের বিপক্ষে হেরে যাওয়ার ফলে জিম্বাবুয়েকে ফাইনাল খেলার জন্য তাকিয়ে থাকতে হবে ২৫ তারিখ বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচের দিকে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বাংলাদেশ ২১৬/৯ (৫০), তামিম ৭৬, বিজয় ১, সাকিব ৫১, মুশফিক ১৮, মাহমুদউল্লাহ ২, সাব্বির ৬, নাসির ২, মাশরাফি ০, সানজামুল ১৯, মুস্তাফিজ ১৮*, রুবেল ৮*, রাজা ৩৯/১, ক্রেমার ৩২/৪, জার্ভিস ৪২/৩, চাতারা ৩৩/১

জিম্বাবুয়ে ১২৫/১০(৩৬.৩), সিকান্দার রাজা ৩৯, ক্রেমার ২৩, মুর ১৪, আরভিন ১১, জার্ভিস ১০, সাকিব ৩৪/৩, মাশরাফি ২৯/২, মুস্তাফিজ ১৬/২, সাঞ্জামুল ২৮/২, রুবেল ১৮/১

ফলাফল: বাংলাদেশ ৯১ রানে জয়ী।

ম্যাচসেরা: তামিম ইকবাল (বাংলাদেশ)

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

ভুতুড়ে ব্যাটিংয়ে ম্লান তামিম-সাকিব বীরত্ব

Read Next

বাশারকে টপকে গেলেন মাশরাফি

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share