টাইগারদের দাপুটে বোলিং, ১৭০ রানেই শেষ জিম্বাবুয়ে

featured photo1 62

ত্রিদেশীয় সিরিজে দারুণ সূচনা করলো বাংলাদেশ। সিরিজের উদ্বোধনী ম্যাচে আগে বল করে জিম্বাবুয়েকে কম রানেই বেঁধে ফেলেছে মাশরাফি বিন মর্তুজার দল। টাইগারদের বোলিং তোপে মাত্র ১৭০ রানেই শেষ হয় জিম্বাবুয়ের ইনিংস। 

টসে জিতে কুয়াশার কারণে আগে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। দলে ফেরেন ২০১৫ বিশ্বকাপে শেষবার ওয়ানডে খেলা এনামুল হক বিজয়। অধিনায়ক মাশরাফির সাথে দলে আর দুই পেসার মুস্তাফিজুর রহমান ও রুবেল হোসেন। বাঁহাতি স্পিনে সাকিব আল হাসানের সঙ্গী সানজামুল ইসলাম। জিম্বাবুয়ে দলের হয়ে অভিষেক হয় ব্লেসিং মুজারাবানির।

DTkN4ggWsAAigIw
ব্লেসিং মুজারাবানিকে ওয়ানডে ক্যাপ পরিয়ে দেন হ্যামিল্টন মাসাকাদজা

অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা সাকিব আল হাসানের হাতে বল তুলে দেন শুরুতেই। দলের সেরা পারফর্মার অধিনায়কের মুখে হাসি এনে দিতে সময়ই নেননি। নিজের করা দ্বিতীয় বলেই স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলে সলোমন মিরেকে সাজঘরে ফেরান সাকিব। জিম্বাবুয়ে দলকে বিপদের সাগরের মাঝে ফেলে ১ বল বাদেই ফেরেন ক্রেইগ আরভিন। প্রথম ওভারেই দুই উইকেট নিয়ে ম্যাচে নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করেন সাকিব আল হাসান।

26937980 1953881821542941 1905670294 o
সাকিবকে ঘিরে সতীর্থদের উদযাপন

বাংলাদেশের কন্ডিশন হাতের তালুর মতো চেনা হ্যামিল্টন মাসাকাদজার। বাংলাদেশের বিপক্ষে বরাবরই ব্যাট হাসে মাসাকাদজা ও ব্রেন্ডন টেলর। তাই দ্রুত ২ উইকেট ফেলে দিয়েও স্বস্তিতে ছিল না বাংলাদেশ শিবির। স্বস্তি ফেরানোর দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। মাসাকাদজাকে উইকেটের পেছনে মুশফিকুর রহিমের ক্যাচ বানিয়ে ফেরান তিনি। মাসাকাদজার রান তখন ১৫, মাসাকাদজার দলের ৩০।

26943305 1953881808209609 1478941880 n
আঁটসাঁট বোলিং করার ফল পান মুস্তাফিজ

৩ উইকেট হারিয়ে খোলসবন্দী হয়ে পড়েন ব্রেন্ডন টেলর, সিকান্দার রাজারা। বলতেই হয়, দারুণ লাইন-লেন্থে বল করে ব্যাটসম্যানদের খোলসের মধ্যে ঢুকে যেতে বাধ্য করেন মুস্তাফিজুর রহমান। আঁটসাঁট বোলিং করার ফল পেতে দেরি হয়নি, ব্রেন্ডন টেলর উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ব্যক্তিগত ২৪ রানের মাথায়। টেলর ফিরে যাবার পর তিন স্লিপ ও দুই গালি রেখে ফিল্ডিং সাজান মাশরাফি বিন মর্তুজা।

26734304 2106466766242913 7656574666585183862 n
ব্রেন্ডন টেলর ফিরে যাবার পর এভাবেই ফিল্ডিং সাজান মাশরাফি। ছবি: গাজী টিভি

২১ তম ওভারে প্রথমবারের মতো বোলিংয়ে আসেন রুবেল হোসেন। ১০০ ওয়ানডে উইকেট থেকে ২ উইকেট দূরে থাকা রুবেল হোসেন উইকেটের সুযোগ সৃষ্টি করেন চতুর্থ বলেই। তবে প্রথম স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা নাসির হোসেন ফেলে দেন সহজ ক্যাচ। তখন ৪ রানে থাকা ম্যালকম ওয়ালার আরো একবার সুযোগ পান ২৬ তম ওভারের দ্বিতীয় বলে। সানজামুল ইসলাম নিজের বলে নিজে ক্যাচ ছাড়েন। যদিও এক বল বাদেই সেই আক্ষেপ ঘুচিয়েছেন তিনি। স্লিপে দারূণ এক ক্যাচ নেন সাব্বির রহমান।

জিম্বাবুয়ের ব্যাটিং বিপর্যয়ের দিন উজ্জ্বল ছিলেন সিকান্দার রাজা। শুরুতে বেশ নড়বড়ে থাকলেও উইকেটে কিছুক্ষণ কাটানোর পর স্বাচ্ছন্দ্যেই খেলেন সিকান্দার রাজা। ৮১ রানে ৫ উইকেট হারানো জিম্বাবুয়ের ইনিংসে প্রথম পঞ্চাশোর্ধ্ব রানের জুটি আসে ৬ষ্ঠ উইকেট জুটিতে। যেখানে সিকান্দার রাজার সঙ্গী ছিলেন পিটার মুর। বাংলাদেশের বিপক্ষে নিজের প্রথম ফিফটি তুলে নে রাজা নিজের খেলা ৯২ তম বলে। যা কিনা তার ক্যারিয়ারের নবম ফিফটি।

26940674 1953881804876276 2055522187 n
৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচের সেরা বোলার সাকিব আল হাসান

তবে ফিফটি পূর্ণ করার পরপরই ব্যক্তিগত ৫২ রানে রানআউটে কাটা পড়েন সিকান্দার রাজা। রাজার বিদায়ের পর গ্রায়েম ক্রেমার ও পিটার মুর ৩০ রান যোগ করে। নিজের শেষ ওভারে এসে ক্রেমারকে সাজঘরে ফেরান সাকিব আল হাসান।

পাশমার্ক (৩৩) তুলে রুবেল হোসেনের বলে বোল্ড হন পিটার মুর। ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১০০ উইকেট পূর্ণ করেন পরের বলেই চাতারাকে বোল্ড করে। জিম্বাবুয়ের ইনিংস শেষ হয় অভিষিক্ত মুজারাবানিকে মুস্তাফিজ বোল্ড করলে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

জিম্বাবুয়ে ১৭০/১০ (৪৯), সিকান্দার রাজা ৫২, পিটার মুর ৩৩, সাকিব আল হাসান ৪৩/৩, মুস্তাফিজুর রহমান ২৯/২, রুবেল হোসেন ২৪/২, মাশরাফি বিন মর্তুজা ২৫/১, সানজামুল ইসলাম ২৯/১

Shihab Ahsan Khan

Shihab Ahsan Khan, Editorial Writer of Cricket97 & en.Cricket97

Read Previous

আফিফের অলরাউন্ড নৈপুণ্যে টানা দ্বিতীয় জয় বাংলাদেশের

Read Next

দশ হাজারি ক্লাবে তুষার ইমরান

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share