বৃষ্টির পরে শেষদিনের চাপে বাংলাদেশ

match report
Vinkmag ad

তৃতীয় দিন আর চতুর্থ দিনের সমাপ্তিটা মিলে গেলো ভীষণ কাকতালীয় ভাবেই! রোববারও খেলা বন্ধ হয়েছে এক সেশন বাকি থাকতেই। তবে তাতে বিপদ কমছেনা টাইগারদের। ব্যাটিং নেমে যত ওভার ব্যাট করা গেছে তাতেই বাংলাদেশ হারিয়েছে তিন উইকেট। পঞ্চম আর শেষদিনে তাই মুশফিকদের চাপটা আকাশ সমান। 

চা-বিরতির পর পচেফস্ট্রুমে হঠাৎই হানা দিয়েছে বৃষ্টি। বৃষ্টির ঝাপটায় ম্যাচ রেফারী আর আম্পায়াররা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন দিনের খেলা শেষ করার। তার আগ পর্যন্ত দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের সংগ্রহ তিন উইকেট ৪৯ রান। ৩৭৪ রানে পিছিয়ে আছে অতিথিরা। নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে স্বাগতিকরা ৬ উইকেট হারিয়ে ২৪৭ রান ঘোষণা করেছে ইনিংস।

268695

৪২৪ রানের পর্বতসম লক্ষ্য তাড়া করতে ওপেনিংয়ে ফেরা তামিম ইকবাল মাঠে নেমেছিলেন ইমরুল কায়েসকে সঙ্গে নিয়ে। আর মর্নে মর্কেলের করা ইনিংসের প্রথম ওভারেই সফরকারীরা পড়েছিল বিপর্যয়ে। তামিমকে সরাসরি বোল্ড করে শূন্য হাতে সাজঘরে পাঠানোর পর মর্কেল ফিরিয়েছেন মুমিনুলকেও।

প্রথম ইনিংসে দলের হয়ে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহ করা মুমিনুল হক বল হাতে জ্বলেছিলেন পচেফস্ট্রুমে। তাই ব্যাট হাতে দ্বিতীয় ইনিংসেও মুমিনুলের উপর প্রত্যাশাটা বাড়তিই ছিল। কিন্তু এই ইনিংসে আর পারেননি মুমিনুল। বিনা রানে বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে নেই দুই উইকেট।

268687

এরপর দলকে টেনে তোলার দায়িত্বটা নিজেদের কাঁধে চাপিয়ে অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম আর ইমরুল কায়েস শুরু করেছিলেন প্রতিরোধ। তবে মসৃণ ছিলনা সেই প্রতিরোধ। মর্কেল মুশফিককে বোল্ড করে উল্লাসে মেতেছিলেন ঠিকই। তবে আম্পায়ার সেধেছেন বাধ, টিভি রিপ্লেতে দেখা গেছে দাগের পেছনে ছিল না মর্কেলের পায়ের কোনো অংশ। ফলাফল, ‘নো’ বলে আউট হয়েও মুশফিক ফের ফিরেছিলেন উইকেটে।

ইমরুল কায়েসও বেঁচেছেন কাগিসো রাবাদার শিকার থেকে। দ্বিতীয় স্লিপে ইমরুলের সহজ ক্যাচটা ফেলে দিয়েছিলেন প্রোটিয়া কাপ্তান ফাফ ডু প্লেসিস। বেঁচে যাওয়ার সে সুযোগ অবশ্য ইমরুল কাজ লাগাতে পারেননি। কেশব মহারাজ সাজঘরে পাঠিয়েছেন বেশ কিছুদিন পর দলের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে ফিরে আসা ইমরুলকে।

কুইন্টন ডি ককের হাতে ক্যাচ জমিয়ে ইমরুলের ফিরে যাওয়ার পর অবশ্য আর ব্যাট করতে বাংলাদেশকে। চা-বিরতি ততক্ষণে শুরু হয়ে গিয়েছিল। আর বিরতির পর তো বৃষ্টি মাঠে গড়াতে দেয়নি এক বলও। পঞ্চম দিনের খেলা শুরুর অপেক্ষায় তাই দুই উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহিম (১৬*) আর লিটন দাস।

এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকা দিন শুরু করে আগের দিনের ২ উইকেটে ৫৪ রান নিয়ে। বাংলাদেশকে অবশ্য বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি দিনের প্রথম উইকেটের জন্য। আগের দিন এইডেন মারক্রামকে নিজের কাটারের বিষে নীল করেছিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। আর নতুন দিনে মুস্তাফিজের কাটারে কাটা পড়েছেন হাসিম আমলা।

268659

লিটনের হাতে ক্যাচ দিয়ে আমলার ফিরে যাওয়ার পরই যেন আরও অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছিল স্বাগতিকরা। ফাফ ডু প্লেসিস আর টেন্ডা বাভুমা মিলে রান তুলেছেন ওয়ানডের মেজাজে। অবশ্য বাভুমা বেঁচেছেন আট রানে। ইমরুল কায়েস সেই ক্যাচ তো লুফে নিতে পারেনইনি বরং আঙ্গুলে চোট পেয়ে ছেড়েছেন মাঠ।

এই দুইয়ের ব্যাটিংয়ের মাঝে একবার অবশ্য দেখা দিয়ে গিয়েছিল বৃষ্টি। ১৪২ রানের জুটিতে দলকে নিয়েছেন বড় সংগ্রহে, প্রতিপক্ষকে দেয়া গেছে বিশাল লক্ষ্য। মাত্র ৫৫ বলে অর্ধশতক তুলে নিয়ে শতকের পথে হাঁটতে থাকা ডু প্লেসিস থেমেছেন ৮১ রানে। ১০১ বলে ইনিংস সাজিয়েছেন ৬ চার আর এক ছয়ে।

268676

চতুর্থ দিনে বাংলাদেশ দলের জন্য অন্যরকম মুহূর্ত হয়ে থাকবে মুমিনুলের বলে লিটন দাসের বাভুমা শিকার। দারুণ বিচক্ষণতার পরিচয় দিয়ে বাভুমার প্যাডল সুইপ লিটন জমিয়েছেন হাতে। মুমিনুলকে বেশ কয়েকটা বল সুইপ করে খেলছিলেন বাভুমা। চতুর লিটন একটু আগে থেকেই সরতে শুরু করেন লেগ স্টাম্প থেকে। বাভুমাও হাঁকিয়েছেন আর লিটনও লাফিয়ে পাকড়িয়েছেন দুর্দান্ত এক ক্যাচ।

মুমিনুলের দ্রুত তিন উইকেট তুলে নেয়ায় স্বাগতিকরা ১০ রানেই হারিয়ে ফেলে তিন ব্যাটসম্যান। প্লেসিসও তাই আর ঝুঁকি নিতে চাননি। ২৪৭ রানেই করেছেন ইনিংস ঘোষণা। মুস্তাফিজুর রহমান পেয়েছেন দুই উইকেট। শফিউলের সংগ্রহে উইকেট গেছে একটি।

হাতে মাত্র সাত উইকেট, দিন বাকি এখনও একটি। পঞ্চম দিনের ৯০ ওভার বাংলাদেশের জন্য নিঃসন্দেহে কাঁটা বিছানো পথ। যদিও শেষদিনে রয়েছে বৃষ্টির পূর্বাভাব। বৃষ্টিতে পন্ড হয় যদি শেষদিন তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টানা তিন টেস্ট ম্যাচেই বৃষ্টিবিঘ্নিত ড্র করবে টিম বাংলাদেশ।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ডঃ

দক্ষিণ আফ্রিকা ১ম ইনিংসঃ ৪৯৬/৩ (ইনিংস ঘোষণা; ১৪৬ ওভার)

বাংলাদেশ ১ম ইনিংসঃ ৩২০/১০ (৮৯.১ ওভার)

দক্ষিণ আফ্রিকা ২য় ইনিংসঃ ২৪৭/৬ (ইনিংস ঘোষণা; ৫৬ ওভার) ডু প্লেসিস ৮১, বাভুমা ৭১, আমলা ২৮। মুমিনুল ৩/২৭, মুস্তাফিজ ২/৩০, শফিউল ১/৪৬

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

লিড নিয়েও অস্বস্তিতে শ্রীলঙ্কা

Read Next

রোহিতের শতকে জিতেই শেষ করলো ভারত

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share