অসম্ভব ছিলোনা সাড়ে চারশো রানওঃ মুমিনুল

featured photo1 1 1
Vinkmag ad

ঠিক যেভাবে এগিয়েছিলেন ব্যাটসম্যানেরা সেভাবে পূর্ণতা পায়নি বাংলাদেশের স্কোরবোর্ড। শেষ চার উইকেটের পতন ঘটেছে মাত্র ২৮ রানের মধ্যেই! আর এখানেই পিছিয়ে গিয়ে ইনিংস শেষে টাইগারদের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ৩২০ রান। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক মুমিনুল হক জানালেন, সম্ভব ছিল সাড়ে চারশো রানের পুঁজি গড়া! 

268641

ব্যাটসম্যানদের মধ্যে মুমিনুল হক আর মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, দুজন দেখা পেয়েছেন অর্ধশত রানের। পঞ্চাশ রানের জুটি এসেছে চারটি। এরপরেও স্কোরকার্ডে কম রান আসার কারণ হিসেবে মুমিনুল দাঁড় করিয়েছেন উইকেটে মানিয়ে নেয়ার পরেও আউট হয়ে যাওয়াকে। জুটি বড় না করতে পারার আক্ষেপও ঝরেছে ৭৭ রান সংগ্রহ করা মুমিনুলের কণ্ঠে।

“আমরা যেহেতু প্রায় সবাই থিতু হয়ে আউট হয়েছি, আমার কাছে মনে হয় ৩২০ রান একটু কমই হয়েছে। এটা চারশ, সাড়ে চারশ হতে পারত। যদি রিয়াদ ভাই আউট না হত, আমি আউট না হতাম। যদি কেউ একশ করতে পারতাম, আরও বড় জুটি হত। তাহলে সাড়ে চারশ রান হতে পারত।”

নিজের আউটটা নিয়েও মুমিনুল কথা বলেছেন সেনওয়েস পার্কের সংবাদ সম্মেলন কক্ষে এসে। হালকা ব্যাকফুটে এসে বলটাকে চেয়েছিলেন লেগ সাইডে পাঠাতে। কেশব মহারাজের বলটা একটু অপ্রত্যাশিত ছিল বোধহয়, তাই যেখানে যাওয়ার বলটা যায়নি সেখানে। শর্ট লেগে থাকা মারক্রামের হাত লুফে নিয়েছে মুমিনুলের ক্যাচটা।

“আমি যেমন আশা করেছিলাম, বলটা তেমন হয়নি। আমি হয়তো একটু বেশি টার্ন আশা করেছিলাম, সে কারণে শটটা ঠিক হয়নি। যদি দ্বিতীয় ইনিংসে যদি সুযোগ পাই এই ভুল উতরানোর চেষ্টা করব।”

 তবে উইকেট মোটেও অপরিচিত লাগেনি মুমিনুলের। ব্যাটিংটা উপভোগই করেছেন দক্ষিণ আফ্রিকার মাঠে প্রথমবারের মত খেলতে নেমে। “প্রথম দিন থেকেই উইকেট খুব ভালো ছিল। অনেকটা আমাদের দেশের উইকেটের মতো। ব্যাটিং করতে খুব ভালো লেগেছে।”

৯৭ প্রতিবেদক

Read Previous

ম্যাচ বাঁচানোয় চোখ মুমিনুলের

Read Next

টাইগারদের শটে বিস্মিত প্রোটিয়ারা

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share