দিনশেষে আফসোসের নাম ‘বোলিং’

match report 31
Vinkmag ad

বহুকষ্টে থামানো গিয়েছিল স্বাগতিকদের উদ্বোধনী জুটিকে। ডিন এলগার আর আর এইডেন মারক্রাম যেন জমেই গিয়েছিলেন উইকেটে। অভিষেকে মারক্রামকে শতক বঞ্চিত করে সাজঘরের পথ দেখানো গিয়েছে চা-বিরতির একটু আগে। তবে, হাসিম আমলাকে সঙ্গে নিয়ে বাংলাদেশের জন্য সময়টা আরও কঠিন করে তুলছেন সেঞ্চুরির দেখা পাওয়া ডিন এলগার। 

পচেফস্ট্রুমে সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিনশেষে বাংলাদেশের আক্ষেপ হয়ে থাকবেন বোলাররা। পুরো দিনে উইকেটের পতন হয়েছে একটি, তাও সেটি আবার রানআউট! অর্থাৎ প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানদের নিজেদের অস্ত্রে ঘায়েল করতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছেন টাইগার বোলাররা।

268536

প্রথম দিনশেষে স্বাগতিকরা আছে শক্ত অবস্থানে। স্কোরকার্ডে মিলছে বড় সংগ্রহের আভাস। ৯০ ওভারে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ১ উইকেটে ২৯৮ রান। উইকেটে অপরাজিত আছেন ডিন এলগার (১২৮*) এবং হাসিম আমলা (৬৮*)।

যদিও স্বাগতিকদের এমন ব্যাটিংয়ের সুযোগটা করে দিয়েছিলেন স্বয়ং অতিথি কাপ্তানই। সকালে টস জিতে মুশফিকুর রহিম যখন বেছে নিয়েছেন বোলিং, অনেকের চোখই তখন কপালে। আর এমন আদর্শ ব্যাটিং উইকেটে টসে হেরেও উইলো হাতে নামার সুযোগ পেয়ে দারুণ খুশি ফাফ ডু প্লেসিস।

তিন টেস্ট পরে টেস্ট দলের জার্সিতে পচেফস্ট্রুমে ফিরেছেন উইকেটরক্ষক লিটন দাস এবং অলরাউন্ডার মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। গ্লাভস হাতে মুশফিকের জায়গায় লিটনকেই বেছে নিয়েছে টিম ম্যানেজমেন্ট। আর সাকিব আল হাসানের অনুপস্থিতে রিয়াদের উপর বর্তাচ্ছে সব্যসাচীর ভূমিকাটা। তবে, প্রথম টেস্টের জন্য ফিট না হওয়ায় সৌম্য সরকার ছিলেন ডাগ-আউটেই।

শুষ্ক উইকেটে অভিষিক্ত মারক্রাম আর অভিজ্ঞ এলগারের শুরুটা ছিল ভীষণ ধীরে সুস্থে। প্রথম দশ ওভারে দুজন মিলে নিয়েছেন ২৮ রান। সময় গড়ানোর সাথে সাথে দুজন বের হয়েছেন খোলস থেকে। দারুণ বোঝাপড়ায় শট কম খেলে সিঙ্গেলসের দিকেই মনযোগী হয়েছেন এই যুগল।

লাঞ্চের বিরতি পর্যন্ত নির্বিঘ্নেই প্রোটিয়া উদ্বোধনী জুটি স্কোরকার্ডে জড়ো করেছে ৯৯ রান। আর ফিরে এসে দ্বিতীয় সেশনে হয়েছেন আরও অপ্রতিরোধ্য। অভিষেক টেস্ট ইনিংসে অর্ধশতক যেমন পেয়েছেন মারক্রাম, তেমনি এলগারও তুলেছেন ফিফটি।

268531

পাল্লা দিয়েই রান তুলছিলেন দু’জন। একবার মারক্রাম ছাড়িয়ে যাচ্ছিলেন এলগারকে তো এলগার টপকে যাচ্ছিলেন মারক্রামকে। নিজের অভিষেক টেস্টেই শতকের পথে তখন মারক্রামের প্রয়োজন আর মাত্র ৩ রান। কিন্তু, হঠাৎই বোঝাপড়ায় দেখা দিলো খানিকটা অভাব আর তাতেই মিরাজের হাতে রানআউটে কাটা পড়লেন মারক্রাম।

হলোনা, ১০৪তম ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক টেস্টে সেঞ্চুরি। কিন্তু ১৫২ বলে ১৩ চারে ৯৭ রান করা এইডেন মারক্রাম দলকে ঠিকই দিয়ে গিয়েছেন দারুণ এক জুটি। এলগারের যোগ্য সমর্থনে ১৯৬ রানের বড় এক জুটি গড়ে তবেই ফিরেছেন সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকা যুবদলের অধিনায়ক।

268544

হাসিম আমলা উইকেটে আসার অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে ডিন এলগার তুলে নেন নিজের নবম টেস্ট শতকটা। এরপরেই মঞ্চটা যেন ছেড়ে দিয়েছিলেন শুধুই আমলাকে। বাংলাদেশের বোলারদের আরও কোণঠাসা করে দিয়ে এই দুজনের ব্যাট থেকে এসেছে ১০২ রানের অপরাজিত জুটি। যে জুটির ৬৮ রানই এসেছে আমলার ব্যাট থেকে!

শতক পূর্ণ করে এলগার নিয়েছেন আর মাত্র ২৮ রান। দিনশেষে অপরাজিত আছেন ১২৮ রান করে। বল খেলেছেন ২৮৫টি, ৯ চারের সাথে রয়েছে দুই ছক্কা। আর নিজের ২৭তম টেস্ট সেঞ্চুরির সুবাসটা পেতে শুরু করা আমলার উইলোতে রান এসেছে অপরাজিত ৬৮। ১০৩ বলে এক ছয়ের পাশাপাশি চার হাঁকিয়েছেন ৭টি।

268545

আপাতদৃষ্টিতে স্বাগতিকরা যে এগোচ্ছে পাহাড়সম পুঁজির দিকে তেমনটা নিশ্চিতই। দারুণ ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে প্রতিপক্ষকে সুযোগ তৈরি করে দেয়ার আফসোসে মুশফিক হয়তোবা পুড়ছেন বেশ। তবে, যা হয়ে গেছে তা নিয়ে চিন্তা করে ক্ষতি ব্যতীত লাভ তো হচ্ছেনা। তাই দ্বিতীয় দিনে যত কম রানে স্বাগতিকদের আটকানো যায়, বোলারদের পূর্ণ মনযোগটা দেয়া উচিৎ সেদিকেই।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ডঃ

দক্ষিণ আফ্রিকা ১ম ইনিংসঃ ২৯৮/১ (৯০ ওভার) এলগার ১২৮*, মারক্রাম ৯৭, আমলা ৬৮*। মুস্তাফিজ ০/৫৪, শফিউল ০/৪৪, মিরাজ ০/১০১, তাসকিন ০/৫২

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

শুরুর ধাক্কা সামলে আবুধাবিতে এগিয়ে লঙ্কানরা

Read Next

ঘোষণা না আসা পর্যন্ত বহিষ্কার স্টোকস-হেলস

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Total
0
Share