স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে পরাজিত করে ফাইনালে পা রাখলো পাকিস্তান

ইংলিশদের কষ্টটা যেন একটু অন্যরকমই। পুরো আসরের একমাত্র দল যারা গ্রুপ পর্বের সবগুলো ম্যাচেই মুখ দেখেছে জয়ের। সেমিফাইনালে এসে এক পরাজয়েই ঘরের মাঠে ফাইনালে আর জায়গা হলোনা ইংলিশদের। প্রথম ফাইনালিস্ট হিসেবে স্বাগতিকদের পরাজিত করে ওভালের ফাইনালে নিজেদের অবস্থান নিশ্চিত করলো পাকিস্তান।

টস জিতে ফিল্ডিং বেছে নেয়া পাকিস্তানীদের সামনে অসহায় হয়ে পড়া ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে সবকটি উইকেট হারিয়ে সংগ্রহ করে ২১১ রান। দুই উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান আজহার আলী আর ফাখার জামানের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে ১৩ ওভার হাতে রেখেই ৮ উইকেটের সহজ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে টিম পাকিস্তান।

২১২ রানের লক্ষ্যমাত্রা, টপকাতে পারলেই ফাইনাল! এমন সমীকরণকে সামনে রেখে আজহার আলী আর ফাখার জামান নামেন পাকিস্তান ইনিংসের গোড়াপত্তন করতে। ১১৮ রানের জুটি গড়ার পথে দুজনই তুলে নেন অর্ধশতক। ৫৮ বলে ৭ চার আর এক ছয়ে ৫৭ রান করে ফাখার জামান বিদায় নিলে ব্যাটিংয়ে আসা বাবর আজমের সাথে ফের ৫৫ রানের জুটি গড়েন আজহার আলী।

দলের ইনিংস সর্বোচ্চ ১০০ বলে ৫ চার এক ছয়ে ৭৬ রান করে আজহার সাজঘরের পথে হাঁটলেও ততক্ষণে জয়ের ভিত গড়া হয়ে গেছে। মোহাম্মদ হাফিজের ঝড়ো ২১ বলে অপরাজিত ৩১ রান আর বাবর আজমের হার না মানা ৩৮ রানে সহজেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় পাকিস্তান।

ইংলিশদের পক্ষে একটি করে উইকেট লাভ করেন জ্যাক বল এবং আদিল রশীদ। দুর্দান্ত বোলিংয়ে ইংলিশদের অল্পরানে বেঁধে রাখার সবচেয়ে বড় কারিগর হাসান আলী জিতে নেন ম্যান অফ দ্যা ম্যাচের পুরষ্কার।

বৃহস্পতিবারের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে বাংলাদেশ-ভারতের লড়াই শেষে জানা যাবে ১৮ই জুন ওভালে পাকিস্তানের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ৮ম আসরের ফাইনালের প্রতিপক্ষ।

সংক্ষিপ্ত স্কোরকার্ডঃ 

ইংল্যান্ডঃ ২১১/১০ (৪৯.৫ ওভার) জো রুট ৪৬, বেয়ারস্টো ৪৩, স্টোকস ৩৪, মরগান ৩৩। হাসান আলি ৩/৩৫, জুনাইদ খান ২/৪২, রুম্মান রাইস ২/৪৪

পাকিস্তানঃ ২১৫/২ (৩৭.১ ওভার) আজহার আলী ৭৬, ফাখার জামান ৫৭, বাবর আজম ৩৮*, মোহাম্মদ হাফিজ ৩১*। জ্যাক বল ১/৩৭, আদিল রশীদ ১/৫৪

ফলাফলঃ পাকিস্তান ৮ উইকেট জয়ী।

ম্যান অফ দ্যা ম্যাচঃ হাসান আলী (পাকিস্তান)।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

দ্বিতীয় সেমিতে টাইগারদের প্রতিপক্ষ স্নায়ুচাপ

Read Next

সাব্বিরের উপর আস্থা রাখছেন হাথুরুসিংহে

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।