ভারতকে হারিয়ে শিরোপা জেতা হলনা বাংলাদেশের

ভারতকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের শিরোপা জেতার স্বপ্ন অধরাই রয়ে গেল বাংলাদেশ যুবাদের। রোববার (১১আগস্ট) হোভস কাউন্টি গ্রাউন্ডে ৬ উইকেটে জিতেছে ভারত অনূর্ধ্ব ১৯ দল। বাংলাদেশের দেওয়া ২৬২ রানের টার্গেটে জয়ের পথে চার ফিফটির দেখা পেয়েছে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা।

ফাইল ছবি

পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থাকা বাংলাদেশের দেওয়া ২৬২ রানে লক্ষ্য তাড়ায় শুরু থেকেই সাবলীল ব্যাটিং করে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। দুই ওপেনার ইয়াশাসভি জাইসাল ও দিব্যাংশ সাক্সেনা ২২ ওভারে তুলে ফেলেন ১০৪ রান। দুজনেই পান ফিফটির দেখা, মাঝে ৫ রানের ব্যবধানে দুই উইকেট হারালেও অধিনায়ক প্রিয়ম ও ধ্রুব জুরেলের জোড়া ফিফটিতে সহজেই লক্ষ্যে পৌঁছায় ভারতীয় যুবারা। সর্বোচ্চ ৭৩ রান আসে প্রিয়মের ব্যাট থেকে, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ অপরাজিত ৫৯ রান করেন জুরেল। বাংলাদেশের পক্ষে রাকিবুল হাসান দুটি ও শরিফুল এবং মৃত্যুঞ্জয় নেন একটি করে উইকেট। ৬৬ বলে ৪ চার ও ২ ছক্কায় ৭৩ রান করা প্রিয়ম আউট হন শরিফুলের বলে। দুই ওপেনার ইয়াশাসভি জাইসাল (৫০) ও দিব্যাংশ সাক্সেনা(৫৫) প্যাভিলিয়নে ফেরেন রাকিবুলের শিকার হয়ে।

টস জিতে ব্যাট করতে নামা বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯ দল দুর্দান্ত শুরুর পর রান আউটের মিছিলে হারিয়েছে পথ।মাহমুদুল হাসানের সেঞ্চুরিতে শেষ বলে অল আউট হওয়ার আগে বাংলাদেশের সংগ্রহ ২৬১।হোভসের কাউন্টি গ্রাউন্ডে শুরুতে ব্যাট করা বাংলাদেশ দুই ওপেনার তানজিদ হাসান ও পারভেজ হোসেন মাত্র ৮.৪ ওভারেই তুলে ফেলেন ৫৮ রান। ২৪ বলে ৪ চারের সাহায্যে ২৬ রান করে তানজিদ রবি বিশনির বলে আউট হলে ভাঙ্গে জুটি।

তানজিদ ফিরে গেলেও আরেক ওপেনার পারভেজ হোসেন তিন নম্বরে নামা মাহমুদুল হাসানকে নিয়ে ৬৫ রানের জুটি গড়েন। এই জুটির পথে পারভেজ তুলে নেন ফিফটি, ১২৩ রানের মাথায় সুশান্ত মিশ্রের বলে রবি বিশনির হাতে ক্যাচ দিয়ে পারভেজ ফেরেন ৬০ রান করে। ৬৪ বলের ইনিংসটিতে চারের মার ছিল সাতটি পাশাপাশি ছক্কাও মেরেছেন তিনটি। একই ওভারে নতুন ব্যাটসম্যান তৌহিদ হৃদয়ও ফেরেন শূন্য হাতে। ফলে ১ উইকেটে ১২২ থেকে টাইগার যুবাদের স্কোরকার্ড হয়ে পড়ে ৩ উইকেটে ১২৩। তবে ক্রিজে আসা ব্যাটসম্যান শাহাদাত হোসেনকে সংগ্রহ বড় করার চেষ্টা চালান মাহমুদুল হাসান।

কিন্তু শাহাদাত ও অধিনায়ক আকবর আলীও দ্রুত ফিরে গেলে আবার বিপদে পড়ে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব১৯ দল। ১৫৯ রানেই ৫ উইকেট হারানো বাংলাদেশের সংগ্রহটা ২৫০ পার হয় মাহমুদুল হাসানের অসাধারণ এক সেঞ্চুরিতে। ৬ষ্ঠ উইকেট জুটিতে শামীম হাসানকে নিয়ে যোগ করেন ৬৫ রান। ৩২ রান করে শামীম রান আউটে কাটা পড়লে ভাঙ্গে জুটি। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারালে ২৬১রানেই থামে বাংলাদেশ যুবারা। ১৩৪ বলে ৯ চার ১ ছয়ে ১০৯ রান করে শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে মাহমুদুল হাসানও ইনিংসের শেষ বলে ফেরেন রান আউট হয়ে। উল্লেখ্য মাহমুদুলসহ বাংলাদেশের শেষ তিনটি উইকেটই রান আউট, ইনিংসে মোট রান আউট চারটি।

৯৭ ডেস্ক

Read Previous

পরিচ্ছন্ন কুরবানির প্রত্যাশা সাকিবের, শুভেচ্ছা জানালেন মুশফিক

Read Next

হারা ম্যাচে গেইলের জোড়া রেকর্ড

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।